বগুড়া জেলাসারাদেশ

তিস্তায় ৪৬ কি.মি সাঁতার প্রতিযোগিতায় ১ম বগুড়ার রাব্বি ও ৩য় মিতু

তিস্তায় ৪৬ কিলোমিটার সাঁতার প্রতিযোগিতায় প্রথম ১৪ বছর বয়সী বগুড়ার ছেলে রাব্বি রহমান ও ১৯ বছর বয়সী বগুড়ার মেয়ে মিতু আক্তার তৃতীয় হয়েছেন।

১১ সেপ্টেম্বর শনিবার মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে রংপুর জেলা প্রশাসন ও জেলা ক্রীড়া অফিসের উদ্যোগে শেখ কামাল তিস্তা সাঁতার প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত ৪৬ কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে মহিপুর শেখ হাসিনা সেতু এলাকায় এসে পৌঁছায় ১৬ জন সাঁতারু। এতে নারী সাঁতারুরাও অংশগ্রহণ করেন।

প্রথম স্থান অধিকারী রাব্বী তিস্তা প্রতিযোগিতায় মাত্র ৫ ঘণ্টা ৩৮ মিনিট ২৬ সেকেন্ডে ৪৬ কিলোমিটার পাড়ি দিয়েছে। এর আগে গত বছর বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে ৪০ জনের মধ্যে প্রথম হয়েছিল সে। রাব্বির বাবা আলানুর রহমান একজন সাঁতার প্রশিক্ষক। তাদের বাড়ি বগুড়া সদর উপজেলার ফুলবাড়ীতে।

তৃতীয় স্থান অধিকারী মিতু আক্তার ৬ ঘণ্টা ১ মিনিট ৩৬ সেকেন্ড সময় নিয়ে তৃতীয় স্থান অধিকার করেন।
এর আগে তিনি ২০১৮ সালে বাংলাদেশের ১ম নারী হিসেবে এবং ২০১৯ সালে নারীদের মধ্যে কম সময়ে বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়েছে। তিনি অনার্সের শিক্ষার্থী। তিনি বগুড়া শহরের জামিলনগরের জহুরুল হকের মেয়ে।

এবার তিস্তা জয়ে আনন্দিত হলে রাব্বী জানান, আমার স্বপ্ন বিশ্বসেরা সাঁতারু হবার। এজন্য নিজেকে তৈরি করতে আমি চেষ্টা করছি। ইচ্ছে আছে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশের পতাকা উঁচিয়ে ধরার।

তৃতীয় স্থান অধিকারী মিতু আনন্দিত হয়ে জানান, তিনি অনেক আনন্দিত ও গর্বিত একজন নারী হয়ে সাতার প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে তৃতীয় স্থান অধিকার করতে পেরেছে। তিনি একজন নারী সাঁতারু হিসেবে বাংলাদেশকে বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে চান। তার চাওয়া তার মত নারীরা সাঁতার প্রতিযোগিতায় এগিয়ে আসুক এবং উপজেলা পর্যায়ে নারীদের জন্য সাঁতার প্রশিক্ষণ কেন্দ্র খোলার আহ্বান জানান তিনি।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button