আইন ও অপরাধ

বগুড়ায় চাকুরীর প্রলোভনে ধর্ষণ চেষ্টা মামলায় বেকারী ম্যানেজার গ্রেফতার

বগুড়ায় চাকুরীর প্রলোভনে হোটেলে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামুন (৪৮) নামের এক বেকারী ম্যানেজারকে গ্রেফতার করেছে সদর থানা পুলিশ।

বগুড়া সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলায় মঙ্গলবার সকালে তাকে সুত্রাপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত মামুন বগুড়ার স্থানীয় একটি বেকারীতে ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করতেন। গ্রেফতারকৃত মামুন বগুড়া শহরের সূত্রাপুর (গোহাইল রোড, ভেলু পট্টির) মৃত আঃ রহমানের ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বগুড়া সদর থানার এস আই বেদার উদ্দিন।

মামলার এজাহার ও বাদী রাখি (ছদ্দনাম) এর সাথে কথা বলে জানা যায়, আসামী মামুন বাদীর পূর্ব পরিচিত। গত ১৩ আগস্ট ২০২১ইং রাখি তার স্বামীর সঙ্গে অভিমান করিয়া মায়ের বাড়ি চলে যায়। এই সুযোগে আসামী মামুন ১৪ আগস্ট রাখির বাবার বাড়ীতে তার স্বামীর সম্পর্কে বিভিন্ন খারাপ মন্তব্য করে রাখিকে স্থানীয় একটি বেকারীতে চাকুরীর দেওয়ার কথা বলে আসামী মামুন চলে আসে এবং ১৬ আগস্ট বিকেল বেলা রাখির মায়ের মুঠোফোনে ফোন করে ২০০ টাকা পাঠিয়ে দেয় এবং বলে বগুড়া শহরে চলে আসো আগামীকাল তোমার চাকুরী হবে। পরের দিন মুঠোফোনে বগুড়া সদর থানাধীন মাটিডালী বিমান মোড়ে আসিতে বলে। রাখি তার কথা বিশ্বাস করে মাটিডালী বিমান মোড়ে পৌছালে রাখিকে মামুন মোটর সাইকেল তার স্ত্রী অসুস্থতার কথা বলে তার সঙ্গে দেখা করানোর কথা বলে বেকারীতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে স্থানীয় একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে যেয়ে রাখিকে কু প্রস্তাব দিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা ও মারধর করে। এসময় চিৎকারে হোটেলের বয় দরজায় নক করলে তাকে ছেড়ে দেয়। পরে হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার পর সুস্থ হয়ে থানায় মামুনের নামে অভিযোগ করেন।

বগুড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ সেলিম রেজা জানান, গ্রেফতারকৃত আসামীকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলায় বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button