জাতীয়

বৈঠকে বসছে বাংলাদেশ-যুক্তরাজ্য

কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ব্রেক্সিট ও কোভিড পরবর্তী নতুন কৌশলগত রূপরেখা প্রণয়নে বৈঠকে বসছে বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্য। ‘এমওইউ ফর স্ট্র্যাটেজিক ডায়ালগ’-এর আওতায় বাৎসরিক পর্যালোচনা বিষয়ক সমঝোতা স্মারক বৈঠকটি লন্ডনে অনুষ্ঠিত হবে।

পররাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের ওই বৈঠকে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক, রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, সামরিক সহযোগিতা, রোহিঙ্গা ইস্যু, আঞ্চলিক নিরাপত্তা ইস্যু স্থান পাবে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, বাৎসরিক পর্যালোচনা বিষয়ক সমঝোতা স্মারক ‘এমওইউ ফর স্ট্র্যাটেজিক ডায়ালগ’-এর আওতায় ঢাকা-লন্ডন বৈঠকে বসছে। ৯ সেপ্টেম্বর লন্ডনে এটি অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকে সম্ভাব্য সবগুলো বিষয় নিয়ে আলোচনা করবে দুই দেশ। বিশেষ করে, ব্রেক্সিট ও কোভিড পরবর্তী দ্বিপাক্ষিক বিভিন্ন বিষয়ে দুই দেশ কীভাবে কাজ করবে তার নতুন কৌশল বা রূপরেখা নিয়ে আলোচনা হবে।

তিন বছর পর বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত রাষ্ট্রের কাতার থেকে বেরিয়ে যাচ্ছে। সেক্ষেত্রে ২০২৪ সালের পর যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশি পণ্যের সুবিধা বহাল থাকা ও ২৭ সালের পর ইইউ’র জিএসপি প্লাস সুবিধা পেতে বিভিন্ন ধরনের প্রচেষ্টা চালাচ্ছে বাংলাদেশ। বৈঠকে এসব বিষয় তুলে ধরা হবে কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা আমাদের প্রত্যেকটা ইস্যু তুলে ধরব।’

এদিকে, বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) লন্ডনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এবং যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডামিনিক রাবের একটি বৈঠকের তারিখ চূড়ান্ত করা ছিল। কিন্তু চলমান আফগান উত্তেজনার কারণে ব্রিটেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডামিনিক রাব সময় দিতে পারেননি বলে বৈঠকটি নির্ধারিত সময়ে অনুষ্ঠিত হয়নি। তবে ড. মোমেনকে শুভেচ্ছা বার্তা পাঠিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেন ডামিনিক রাব।

লন্ডনের বাংলাদেশ দূতাবাস ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র বলছে, আফগান ইস্যুতে রাবের ব্যস্ততা আর মোমেনের নেদারল্যান্ডস সফরের সূচি থাকায় বৈঠকটি এখন আর হচ্ছে না। তবে দ্রুত সময়ের মধ্যে যেন মোমেন-রাব বৈঠকে মিলিত হতে পারে সেই প্রচেষ্টা চালাচ্ছে ঢাকা-লন্ডন।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button