আন্তর্জাতিক খবর

বিয়ের অজুহাতে ৮ জন পুরুষের সঙ্গে প্রতারণা, সেই নারীর দেহে ধরা পরলো এইডস

বিয়ের অজুহাতে ৮ জন পুরুষের সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগে ভারতের পাঞ্জাবে গ্রেফতার হয়েছেন ৩০ বছর বয়সী এক নারী। সেই নারীর সঙ্গে আরও ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে সেখানকার পুলিশ। অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, বিয়ে করে সেই নারী সংসার করতেন বড়জোর ১০ থেকে ১৫ দিন। তারপর সুযোগ বুঝে অর্থকড়ি নিয়ে সোজা উধাও হয়ে যেতেন স্ত্রী। এরপর কিছুদিনের বিরতি। আবার অন্য পুরুষ, অন্য বিয়ে, নতুন সংসার। এভাবে গত চার বছরে আটজন স্বামীর ঘর করেছেন ভারতের ওই নারী। এরপর শারীরিক পরীক্ষায় ধরা পড়েছে, ওই নারী এইচআইভি/এইডসে আক্রান্ত। খবর- জি নিউজ ও আনন্দবাজার পত্রিকা।

ঠিক কতদিন ধরে তিনি এ রোগ বয়ে বেড়াচ্ছেন, তা নিশ্চিত নয়। এ কারণে পুলিশ ওই নারীর সাবেক স্বামীদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। সুস্থতা নিশ্চিত করতে তাদেরও মেডিক্যাল পরীক্ষা করাতে বলা হয়েছে। বিয়ের আড়ালে এমন প্রতারণার ঘটনা অবশ্য ভারতে নতুন নয়। তবে প্রতারক কনের মাধ্যমে আর্থিক ক্ষতির পাশাপাশি প্রতারিতদের এইডসে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কার খবর শোনা গেলো এবারই প্রথম।

ভারতীয় পুলিশ জানিয়েছে, ওই নারীর বাড়ি পাঞ্জাবে। বয়স ৩০। তিনি দুই সন্তানের মা। বিয়ে করে প্রতারণার ব্যবসা করছেন চার বছর ধরে। এ কাজে তার আরও তিন সহযোগী ছিলেন। পুলিশ তাদেরও গ্রেফতার করেছে। পুলিশের কাছে অপরাধ স্বীকার করেছেন অভিযুক্তরা। কীভাবে বিয়ের মাত্র ১৫ দিনের মধ্যে বেরিয়ে আসতেন তা পুলিশকে জানিয়েছেন ওই নারী।

তিনি বলেছেন, অধিকাংশ ক্ষেত্রে পণের মামলার হুমকিতেই কাজ হয়ে যেতো। তবে তাতে সুবিধা না হলে শ্বশুরবাড়ির লোকদের অচেতন করে অর্থ-স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে পালিয়ে যেতেন। পুলিশ জানিয়েছে, চার বছর আগে ওই নারীর স্বামী তাকে ছেড়ে চলে যান। এরপর থেকেই বিয়ে করে প্রতারণার ব্যবসা ফেঁদে বসেন তিনি।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button