পরিবহন

মহাসড়ক ও ফেরিঘাটে বাড়ছে বাড়িফেরা মানুষের চাপ

ঈদ উপলক্ষ্যে মহাসড়ক ও ফেরিঘাটগুলোতে বাড়ছে ঘরমুখো মানুষের ভিড় ও পশুবাহী যানবাহনের চাপ।

আজ শনিবার (১৭ জুলাই) সকাল থেকে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ফেরিঘাটে দেখা গেছে তীব্র যানজট ছিল। রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় ছিল ৮ শতাধিক যানবাহন।

অন্যদিকে, মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে ৪ শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক। শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে সকাল থেকে যাত্রীর চাপ রয়েছে। মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাটে ঢাকামুখী কোরবানীর পশু বোঝাই ট্রাকের চাপ রয়েছে।  অন্যদিকে, ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে ২৫ কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। যানবাহনের চাপ সামাল দিতে না পেরে শুক্রবার রাত থেকে কয়েক দফায় টোল আদায় বন্ধ রাখে সেতু কর্তৃপক্ষ।

গাজীপুরে ঢাকা-টাঙ্গাইল ও ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যাত্রী ও গণপরিবহনের চাপ বেড়েছে। আর, সকাল থেকে সাভারের বিভিন্ন বাস স্ট্যান্ডে ঘরমুখো যাত্রীদের ভিড় দেখা যায়। তবে, শিল্প-কারখানাগুলোতে এখনও ঈদের ছুটি না হওয়ায় মহাসড়কে যাত্রীদের চাপ কিছুটা কম।

উল্লেখ্য, দেশে করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকায় তা প্রতিরোধে ১লা জুলাই থেকে সাত দিনের জন্য কঠোর লকডাউন ঘোষণা করে সরকার। কঠোর বিধি-নিষেধ আরোপ করে প্রজ্ঞাপন জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। পরে ৫ জুলাই আরেক দফায় চলমান কঠোর বিধি-নিষেধের মেয়াদ ১৪ই জুলাই পর্যন্ত বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। এসময় জরুরি পন্য পরিবহণ ছাড়া সব ধরনের যন্ত্রচালিত যানবাহন বন্ধ থাকে। এরপর ঈদ উপলক্ষ্যে গত ১৫ জুলাই থেকে বিধিনিষেধ শিথিল করা হলে আবারও স্বাভাবিক হতে শুরু করে জনজীবন।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button