জাতীয়তথ্য ও প্রযুক্তি

আবার উন্মুক্ত হলো ‘সুরক্ষা অ্যাপ’

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে টিকা প্রয়োগ কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে জনসাধারণের জন্য আবারও নিবন্ধনের সুযোগ উন্মুক্ত হয়েছে ‘সুরক্ষা অ্যাপ’টি। গতকাল মঙ্গলবার (৬ জুলাই) দিবাগত রাত ৯টা থেকে নিবন্ধনের জন্য সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মটি সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

আইসিটি বিভাগ সূত্র বলছে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা পেয়ে মঙ্গলবার রাত থেকেই সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মে পরীক্ষামূলকভাবে নিবন্ধন প্রক্রিয়া সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। আগামী বুধবার (৭ জুলাই) সকাল থেকে এটি আনুষ্ঠানিকভাবে উন্মুক্ত হবে। এর আগ পর্যন্ত যারা নিবন্ধন করবেন তারা কোনো ধরনের সমস্যায় পড়লে সকালের মধ্যেই সেগুলোর সমাধান করা হবে।

যারা এখনও নিবন্ধন করেননি, তারা সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মে গিয়ে নিবন্ধন করে নিতে পারবেন। এবার নিবন্ধনের বয়সসীমা ৪০ বছর থেকে কমিয়ে ৩৫ বছর করা হয়েছে। এছাড়া এবার টিকা নিবন্ধনের অগ্রাধিকার তালিকায় যুক্ত হচ্ছেন কৃষক, শ্রমিক ও আইনজীবীরা। ৫৫ বছর বয়সি রোহিঙ্গারাও নিবন্ধন করতে পারবেন।

এ বিষয়ে সরকারের আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক গণমাধ্যমকে বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী বুধবার থেকে যাদের বয়স ৩৫ বছরের বেশি, তারা এখানে নিবন্ধন করতে পারবেন। এছাড়াও অন্যান্য ক্যাটাগরিতেও নিবন্ধনের ব্যবস্থা থাকছে। যারা নিবন্ধন করবেন, তারা এসএমএস পাওয়ার পর কেন্দ্রে গিয়ে ভ্যাকসিন নিতে পারবেন।

এবার উপজেলা পর্যন্ত যে কেন্দ্রগুলোতে ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হবে সেগুলো অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে বলে তথ্য দেন প্রতিমন্ত্রী ।
তিনি বলেন, বিশেষ ক্যাটাগরি, বিদেশগামীদের ক্যাটাগরিসহ সবার জন্য উন্মুক্ত হয়ে যাবে এই নিবন্ধন প্রক্রিয়া।


উল্লেখ্য, কোভ্যাক্স ফ্যাসিলিটি থেকে বাংলাদেশ ফাইজারের এক লাখ টিকা পেয়েছে। আরও ২৫ লাখ ডোজ টিকা এসেছে মডার্নার। এছাড়া চীনের সিনোফার্মের কাছ থেকে কেনা টিকার ২০ লাখ ডোজও এসেছে দেশে। এসব টিকা দিয়েই এবার ফের জনসাধারণ পর্যায়ে টিকা প্রয়োগ কার্যক্রম শুরু হচ্ছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এবার দেশের ১২টি সিটি করপোরেশন এলাকায় প্রয়োগ করা হবে মডার্নার ভ্যাকসিন। ফাইজারের ভ্যাকসিন দেওয়া হবে কেবল ঢাকার সাতটি কেন্দ্রে। আর বাকি সব এলাকায় দেওয়া হবে চীনের সিনোফার্ম ভ্যাকসিন।

টিকার সংকটের কারণে গত ৫ মে নিবন্ধন কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর। দুই মাসের বেশি সময় পর বুধবার থেকে ৩৫ বছরের ঊর্ধ্বের সবাই টিকা পেতে সুরক্ষা অ্যাপে গিয়ে নিবন্ধন করতে পারবেন।

স্বাস্থ্য অধিদফতর বলছে, সুরক্ষা অ্যাপে জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্ম নিবন্ধন সনদ দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে। ফোন ও জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর, নাম, জন্মতারিখের পাশাপাশি কোনো শারীরিক জটিলতা আছে কি-না, পেশা কী- তাও জানাতে হবে।


স্মার্টফোনে ইন্টারনেট সংযুক্ত করে অ্যাপটি ডাউনলোড করা যাবে। অ্যাপে তথ্য দিলে টিকার আপডেট সম্পর্কে গ্রহীতাদের এসএমএসের মাধ্যমে জানানো হবে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ টিকা বিতরণ করতে এই প্রযুক্তি ব্যবহার করছে।

প্রথম দফায় টিকা পেতে নিবন্ধন করেন ৭২ লাখ ৮০ হাজার ১৩১ জন। এর মধ্যে দুই ডোজ অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা পেয়েছেন ৪২ লাখ ৯০ হাজার ৯৬৪ জন। দ্বিতীয় ডোজ পেতে বাকিদের আরও কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে বলে সরকার থেকে বলা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button
ভাষা নির্বাচন