আন্তর্জাতিক খবর

বৃদ্ধকে নির্যাতনের পর কেটে দিলো দাড়ি

ভারতের উত্তরপ্রদেশে এক মুসলিম বৃদ্ধকে নির্যাতন করেছে। এমনকি তার দাড়িও কেটে ফেলা হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন জানিয়েছে, ৫ জুন গাজিয়াবাদের লোনি এলাকার মসজিদ থেকে নামাজ পড়ে বাড়ি ফিরছিলেন আবদুস সামাদ। 

এ সময় কয়েকজন যুবক তাকে অটো থেকে তুলে নিয়ে যায়। নির্জন এলাকায় নিয়ে তাকে বেধড়ক মারধর করে অভিযুক্ত যুবকরা। জয় শ্রীরাম বলতেও বাধ্য করা হয়। তাতে রাজি না হওয়ায় সামাদকে রাস্তায় ফেলে লাঠি দিয়ে পেটানো হয়। 

সামাদ জানিয়েছেন, লাল টিশার্ট পরা এক যুবক তার গলায় ছুরি রেখে ‘জয় শ্রীরাম’ বলতে বাধ্য করে। তিনি রাজি না হলে তার দাড়ি কেটে নেওয়া হয়। 

নির্যাতনের ঘটনা সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন সামাদ। তিনি জানিয়েছেন, অটোতে চেপে বাড়ি ফিরছিলাম। সেই অটোতে আরও দুই যুবক ওঠে। তারা আমাকে জোর করে একটি ঘরে নিয়ে যায়। সেখানে আমাকে মারধর করে। জোর করে স্লোগান দিতে বাধ্য করা হয়। দাড়ি কেটে নেওয়া হয়। এমনকি ওই যুবকরা আমাকে বলেছিল তারা এর আগেও একাধিক মুসলিমকে মারধর করেছে। খুন করতেও ভয় পায় না তারা।

এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। পরবেশ গুজ্জর বলে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button