খেলাধুলা

আবাহনীর কোচ সুজনের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন সাকিব

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) আবাহনী-মোহামেডান দ্বৈরথে মাঠের খেলা ছাপিয়ে বড় বিষয় হয়ে উঠেছে সাকিব আল হাসানের ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ। শুক্রবার (১১ জুন) আম্পায়ারের সাথে অশোভন আচরণের পর সাকিব তর্কে জড়ান আবাহনীর কোচ খালেদ মাহমুদ সুজনের সাথেও। যদিও পরবর্তীতে সুজনের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন সাকিব।

বিজ্ঞাপন

আসরের সবচেয়ে হাই ভোল্টেজ ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ১৪৫ রান জড়ো করে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। জবাবে ব্যাট করতে নেমে আবাহনী লিমিটেড ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায়। আবাহনীর ইনিংসে পঞ্চম ওভারের পঞ্চম বলে সাকিবের এলবিডব্লিউর আবেদনে সাড়া দেননি আম্পায়ার। এতে মেজাজ হারিয়ে সাকিব নন স্ট্রাইকিং প্রান্তের স্ট্যাম্পে লাথি মেরে বসেন এবং আম্পায়ারের সাথে বিবাদে জড়ান।

ষষ্ঠ ওভারে শুভাগত হোমের করা পঞ্চম বল মাঠে গড়ানোর পর বৃষ্টির কারণে খেলা বন্ধ রেখে উইকেট ঢেকে দেওয়ার জন্য মাঠকর্মীদের ডাকেন ম্যাচ অফিসিয়ালরা। ৫.৫ ওভার শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে আবাহনীর সংগ্রহ দাঁড়ায় ৩১ রান। ষষ্ঠ ওভার সম্পন্ন না করে খেলা বন্ধ করায় সাকিব হাত দিয়ে নন স্ট্রাইকিং প্রান্তের স্ট্যাম্প উপড়ে মাটিতে ছুঁড়ে ফেলেন এবং আম্পায়ারের দিকে তেড়ে যান।

মাঠ ছেড়ে যাওয়ার সময় সাকিব দর্শক ও আবাহনীর কর্মকর্তাদের উদ্দেশে উত্তেজিত হয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেন। এ সময় আবাহনীর কোচ ও বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন মীমাংসার জন্য সাকিবের দিকে এগিয়ে এলে তর্ক বাঁধে দুজনের। দুই দলের খেলোয়াড়-কর্মকর্তারা এসে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সামাল দেন।

তবে এই ঘটনার পর সুজনের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন সাকিব। গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আবাহনীর ম্যানেজার মাসুদ ইকবাল।

তিনি বলেন, ‘ঘটনার পর সাকিব আবাহনীর ড্রেসিংরুমে এসেছিল। সাকিব ক্ষমা চেয়েছেন। ড্রেসিংরুমে সুজনও ছিলেন। দুইজন বুক মিলিয়েছেন, মীমাংসা হয়ে গেছে।’

সাকিবের এমন আচরণ নিয়ে সমর্থকদের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ইতোমধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে সাকিবের প্রশ্নবিদ্ধ আচরণের ভিডিও ও ছবি।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button