শেরপুর উপজেলা

বগুড়ায় বীর মুক্তিযোদ্ধাকে মারধর, থানায় মামলা দায়ের

বগুড়া জেলার শেরপুর উপজেলার দড়িপাড়া গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে মারপিট, বীরমুক্তিযোদ্ধা মো. আইয়ুব হোসেন (৭৩) কে মারপিটের ঘটনায় শেরপুর থানায় অভিযোগের ৩ দিন পর মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার গাড়িদহ ইউনিয়নের দড়িপাড়া গ্রামের মৃত লেদু প্রামানিকের ছেলে গাড়িদহ ইউনিয়ন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আইযুব আইয়ুব হোসেনের সাথে একই গ্রামের মৃত আমজাদ হোসেনের ছেলে মো. হারুনুর রশিদ, মো. হাফিজার রহমান টিটু, মো. শাকিব হোসেনের দীর্ঘ দিন ধরে জমি-জমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।

এরই এক পর্যায়ে গত ২৪ মে সোমবার সকাল ৭ টার দিকে বিরোধপূর্ণ ওই জমিতে জোরপূর্বক হারুনুর রশিদ, মো. হাফিজার রহমান টিটু, মো. শাকিব হোসেন গাছ লাগাচ্ছিল। এ সময় খরবর পেয়ে বীরমুক্তিযোদ্ধা আইয়ুব হোসেন জমিতে গিয়ে গাছ লাগাতে নিষেধ করেন। এ সময় তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষরা মুক্তিযোদ্ধাকে বেধড়ক মারধরের খবর পেয়ে আইয়ুব হোসেনর ছেলে আবু সুফিয়ান ঘটনাস্থলে গেলে তাকেও মারধর করে প্রতিপক্ষরা চলে যায়।

পরে স্থানীয় লোকজন পিতা ও ছেলেকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা করা হয়। ওই দিন সকাল ১০ টাকার দিকে বীরমুক্তিযোদ্ধা আইয়ুব হোসেন বাদী হয়ে শেরপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করলেও তাৎক্ষনিক কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় প্রতিপক্ষরা পালিয়ে যায়। পরে থানা পুলিশ ৩ দিন পর গত ২৬ মে বুধবার রাতে ওই অভিযোগটি এজাহার ভুক্ত করেন।

অভিযোগকারী বীরমুক্তিযোদ্ধা আইয়ুব হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, গত ২৪ মে প্রতিপক্ষরা আমাকে ও আমার ছেলেকে মারপিট করে। ওই দিন সকাল ১০ টার দিকে শেরপুর থানায় একটি অভিযোগ দেই। পরে বুধবার রাতে মামলা এজাহার ভূক্ত হয়।

এ বিষয়ে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, বিরোধপূর্ণ জমিতে গাছ লাগানো বন্ধের জন্য আগে একটি অভিযোগ দেওয়া হয়েছিল। পরবর্তীতে ওই ঘটনাটি মামলা আকারে নেওয়া হয়েছে।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button