আইন ও অপরাধ

গতরাতে আছিয়া হত্যার রহস্য উদঘাটন ও আসামী গ্রেফতার করেছে পুলিশ

বগুড়া গতকাল রাতে আছিয়া বেওয়া (৭০) হত্যার রহস্য উদঘাটন এবং ঘটনায় জড়িত আসামি ইয়াকুব আলীকে(১৯) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আসামী ইয়াকুব আলী বগুড়া সদর উপজেলার বালাকৈগাড়ী মিলন প্রাং এর পুত্র। গ্রেফতারের সময় হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত রক্তমাখা বার্মিজ চাকুও উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

আজ দুপুর সাড়ে ১২টায় বগুড়া জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুইয়া।

পুলিশ জানায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ ইয়াকুব আলী (১৯) জানান বলেন, জমি জমার ভাগ বাটোয়ারা লইয়া পূর্ব থেকে তার মা-বাবার সহিত নানী আছিয়া বেওয়ার বিরোধ ছিল। সম্প্রতি আছিয়া বেওয়া ৩০ হাজার টাকায় একটি বকনা গরু বিক্রি করে এবং রফিক নামে তার একজন নিকট আত্নীয় তাকে ৫ হাজার টাকা দান করেন। উক্ত সংবাদ জানার পর ইং ১১/০৫/২০২১ তারিখ মাগরিবের নামাজের পর আসামী মোঃ ইয়াকুব আলী সেই টাকা নেওয়ার উদ্দেশ্যে তার নানী আছিয়া বেওয়া এর বাড়ীতে যায় এবং টাকা নেওয়ার জন্য কৌশল করতে থাকে। ডিম দিয়ে ভাত খাওয়ার কথা বলে উক্ত আসামী তার নানী আছিয়া বেওয়াকে রাত্রি ৭.৩০ ঘটিকার সময় পার্শ্ববর্তী লুৎফর রহমান লিটন এর মুদি দোকানে ডিম ও ডার্বি সিগারেট আনতে পাঠায়। আছিয়া বেওয়া, লুৎফর রহমান লিটন এর মুদি দোকানে গেলে আসামী ইয়াকুব আলী তার নানীর ঘরে থাকা ৩৫ হাজার টাকা চুরি করার জন্য বিছানার তোষক-বালিশ উলট পালট করে এবং ঘরে থাকা স্টিলের বাক্সের তালা ভেঙ্গে টাকা খুঁজতে থাকাবস্থায় আছিয়া বেওয়া ডিম ও ডার্বি সিগারেট নিয়ে ফিরে এসে দেখে তার নাতি আসামী ইয়াকুব আলী তার বিছানাপত্র উলট পালট করে এবং স্টিলের বাক্সের তালা ভেঙ্গে টাকা খোঁজাখুজি করছে। টাকা না পাওয়ায় আসামী ইয়াকুব আলী তার নানীর নিকট ৩৫ হাজার টাকা দাবি করিলে আছিয়া বেওয়া টাকা দিতে অস্বীকার করে, ফলে আসামী ইয়াকুব আলীর সহিত তার নানী আছিয়া বেওয়া এর কথা কাটাকাটি শুরু হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আসামী ইয়াকুব আলী হঠাৎ উত্তেজিত হয়ে তার কাছে থাকা ধারালো বার্মিজ চাকু দিয়ে আছিয়া বেওয়ার গলার ডান পার্শ্বে আঘাত করে। আছিয়া বেওয়া ঘরের মেঝেতে লুটিয়ে পড়লে আসামী ইয়াকুব আলী হত্যার কাজে ব্যবহৃত বার্মিজ চাকু রাস্তার পার্শ্বে ডোবার পাড়ে ফেলে পালিয়ে যায়।
এর আগে গতকাল রাতে হত্যকান্ডের পরপরই ৯টা ৪৫ মিনিটে বগুড়া জেলা পুলিশ সুপার জনাব মোঃ আলী আশরাফ ভূঞা বিপিএম বার এর নির্দেশে ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আলী হায়দার চৌধুরীর তত্ত্বাবধায়নে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) ফয়সাল মাহমুদ এর নেতৃত্বে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সেলিম রেজা এবং ডিবি বগুড়ার ইনচার্জ মোঃ আব্দুর রাজ্জাক সহ বগুড়া সদর থানা ও ডিবি পুলিশের যৌথ অভিযানে সদর থানাধীন শেখেরকোলা গ্রামের আছিয়া বেওয়া (৭০), হত্যার মুল আসামী ইয়াকুব আলীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।এ সময় হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত রক্ত মাখা বার্মিজ চাকু উদ্ধার করা হয়।

এ বিষয়ে বগুড়া সদর থানায় একটি হত্যা মামলা রজু হয়েছে।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button