বিনোদন

পাঠ্য বইয়ে সুশান্ত সিং রাজপুত

বলিউড তারকা সুশান্ত সিং রাজপুত মারা যান ২০২০ সালের ১৪ জুন। মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় নিজের ফ্ল্যাটে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায় তাকে। আর সেই ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারের পর থেকে তার মৃত্যু নিয়ে শোরগোল পুরো ইন্ডাস্ট্রিতে। একটা মৃত্যু যে বলিউডের পুরো বিনোদন ইন্ডাস্ট্রিকে এভাবে নাড়িয়ে দেবে, তা বোধ হয় কেউ কল্পনাও করতে পারেননি! ভারতীয় সিনেমার তারকা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর নড়েচড়ে গেছে বলিউডের বিশ্বাসের সব ভিত।

বিজ্ঞাপন

‘জাস্টিস ফর সুশান্ত’ হ্যাশট্যাগে অভিনেতার রহস্য মৃত্যুর বিচার চাইতে থাকেন সকলে। এবার অভিনেতা জায়গা করে নিলেন পাঠ্য বইতেও।

পশ্চিম বাংলার পাঠ্য বইয়ে দেখা মিলেছে বলিউডের প্রয়াত এই অভিনেতার। কখনো পরিবার বোঝাতে আবার কখনো মানুষ বোঝাতে স্কুলের বাংলা পাঠ্য বইতে ব্যবহার করা হয়েছে অভিনেতার ছবি। বইয়ের একটি অধ্যায়ে দেখা যাচ্ছে হিন্দি টেলিভিশনে সুশান্ত অভিনীত বিখ্যাত ধারাবাহিক ‘পবিত্র রিস্তা’র একটি ছবি ব্যবহার করা হয়েছে। যেখানে বাবা হিসেবে সুশান্ত ও মা হিসেবে অঙ্কিতা লোখান্ডকে দেখানো হয়েছে।

প্রথম বিষয়টি সামনে আনেন অভিনেতার কাছের বন্ধু ও ‘জাস্টিস ফর সুশান্ত’-এর অন্যতম মুখ স্মিতা পারিখ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বইয়ের ছবি পোস্ট করে স্মিতা লিখেছেন, ‘বাংলা বইতে পরিবারে বাবার গুরুত্ব বোঝাতে সুশান্তের ছবি ব্যবহার করা হয়েছে। আমি গর্বিত।পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে আমাদের শিক্ষা দফতরও মনে করে ও (সুশান্ত) সেরা। ’ নিজের টুইটে সুশান্তের দুই বোন প্রিয়াঙ্কা ও মিঠু সিং-কে ট্যাগ করেছেন স্মিতা।

আরেকটি বইতে আবার মানুষ ও জন্তুর মধ্যে ফারাক বোঝাতে ব্যবহার করা হয়েছে সুশান্তের ছবি। টুইটারে সুশান্তের আরেক ভক্ত স্যান্ডি এই বইয়ের ছবি শেয়ার করে লিখেছেন, ‘আমার ছোট বোনের স্কুলের বিজ্ঞান বই এটা। ও তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ে। এই অধ্যায়ে মানুষ কোনটা, জন্তু কোনটা শেখানো হয়েছে। আর সুশান্তের ছবি ব্যবহৃত হয়েছে মানুষের উদাহরণ হিসেবে। ’

এদিকে, সুশান্তের ভক্তরা বাংলা পাঠ্য বইতে এভাবে অভিনেতার ছবি ব্যবহারে বেশ খুশি। সকলেই নিজেদের সেই উচ্ছ্বাস তুলে ধরেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। বিচার মিলবেই এই আশাতে সকলে আরও একবার মনে করেছেন তাদের অন্যতম প্রিয় অভিনেতাকে।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button