রাজনীতি

চিকিৎসার জন্য লন্ডনেই যেতে চান খালেদা জিয়া

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নিতে সরকারের কাছে আবেদন করেছে তার পরিবার। আবেদনটি এখন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হয়ে আইন মন্ত্রণালয়ে প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম এস্কান্দার বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ধানমণ্ডির বাড়িতে গিয়ে তার সঙ্গে দেখা করে আবেদনপত্রটি দিয়ে আসেন। এ সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল জানান, বিদেশে বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার প্রয়োজন হলে ইতিবাচক দৃষ্টিতে বিবেচনা করা হবে।

আবেদনে খালেদা জিয়াকে বিদেশে নেয়ার কথা বলা হলেও, সেখানে কোন দেশে নেয়া হবে সেটি উল্লেখ করা হয়নি।

তবে বেগম জিয়ার পারিবারিক সূত্র বলছে, খালেদা জিয়াকে লন্ডনে নেয়া হবে। সেভাবেই সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। সবকিছু প্রায় রেডি।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া, অতীতে সব সময় সিঙ্গাপুর ও লন্ডনে চিকিৎসা করাতেন। বেশিরভাগ সময় তিনি চিকিৎসা ও নিয়মিত চেকাপ করিয়েছেন সিঙ্গাপুরে।

তবে এবার লন্ডনে যেতে চান খালেদা জিয়া। লন্ডনে যাওয়ার পক্ষে তিনিও মত দিয়েছেন।

লন্ডনে যাওয়ার অন্যতম কারণ হলো- উন্নত চিকিৎসার পাশাপাশি বড় ছেলে তারেক রহমানকে কাছে পাওয়া। কেননা দীর্ঘদিন ধরে খালেদা জিয়া তার পরিবার থেকে দূরে রয়েছেন।

খালেদা জিয়ার বড় ছেলে তারেক রহমান ও পুত্রবধূ জোবাইদা রহমান পরিবারসহ বর্তমানে লন্ডনে অবস্থান করছেন। লন্ডনে চিকিৎসা নিতে গেলে তিনি ছেলে এবং ছেলের বউয়ের সান্নিধ্যে থাকতে পারবেন। এটি খালেদা জিয়ার জন্য অনেক বড় মানসিক শক্তি যোগাবে।

এছাড়া পুত্রবধূ জোবাইদা রহমান একজন চিকিৎসক। লন্ডনে থেকে তিনি বাংলাদেশে খালেদা জিয়ার সার্বক্ষণিক খোজ খবর রাখেন, এবং চিকিৎসার বিষয়গুলো মনিটরিং করছেন। তাই লন্ডনে গেলে জোবইদা রহমান সশরীরে সবকিছু তত্ত্বাবধান করতে পারবেন। তারাও মনে করছেন ৭৬ বছর বয়সী খালেদা জিয়ার এই সময়ে পরিবারের সান্নিধ্য অনেক জরুরি।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button