বগুড়া জেলা

বগুড়ায় ডিবির অভিযানে ইফাদ গ্রুপের মালামালসহ ৬ ডাকাত গ্রেফতার

বগুড়ায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) অভিযান চালিয়ে ইফাদ গ্রুপের প্রায় ৪৫ লাখ টাকার মালামালসহ আন্তঃজেলা কাভার্ড ভ্যান ডাকাত দলের ছয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে। ওই সময় লুঠ হওয়া মালামাল সহ কাভার্ড ভ্যান উদ্ধার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, সারিয়াকান্দি উপজেলার মৃত যুক্তরাজ আলী খানের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৪০), ঢাকা জেলার মৃত সানাউল্লাহ মিয়ার ছেলে সোলাইমান মিয়া (৪২) মাগুরা জেলার শালিখা উপজেলার খাদেম আহমেদের ছেলে শামিম আহম্মেদ (৩৮), বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার জহুরুল ইসলামের ছেলে ইয়াছিন আলী (২৭), বরগুনা জেলার সদর উপজেলার মৃত ওয়ার্জেত আলীর ছেলে দুলাল মিয়া ড্রাইভার (৪০) ও নরসিংদী জেলার মাসুদুর রহমানের ছেলে রাসেল খান সুজন (80)

বিজ্ঞাপন

জেলা গোয়েন্দা সূত্র জানায়, ডাকাত সদস্য সোলাইমান মিয়ার সাথে ৪ থেকে ৫ বছর আগে কাভার্ড ভ্যান চালক দুলালের সাথে ঢাকার টঙ্গি রেলষ্ট্রেশন এলাকায় পরিচয় হয়। তখন তারা পাশাপাশি বসবাস করতো এবং সোলাইমানও সেই সময় ভিআইপি ২৭ নামক গাড়ীর ড্রাইভার ছিল। তখন থেকে তারা আন্তঃজেলা ডাকাত দল গঠন করে ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট এলাকা থেকে কাভার্ড ভ্যান সহ বিভিন্ন গাড়ী ডাকাতি করে লুঠ হওয়া মালামাল বগুড়া এলাকায় নিয়ে আসে। এবং উত্তরবঙ্গ থেকে কাভার্ড ভ্যান ডাকাতি করে লুঠ হওয়া মালামাল ঢাকা, চিটাগং, সিলেট এলাকায় নিয়ে যায়।

এই মাসের ২২ তারিখে ঢাকা জেলার আশুলিয়া থানা এলাকার ইফাদ কোম্পানীর গোডাউন থেকে ডাকাত দলের সদস্য ড্রাইভার দুলাল ও তার হেলপার রাশেদ মালামাল কাভার্ড ভ্যানে নিয়ে সিলেটের উদ্দ্যেশে বের হয়। রাস্তার মধ্যে ডাকাত সর্দার জাহাঙ্গীর এবং ড্রাইভার দুলাল পরস্পর যোগাযোগ করে নরসীংদি জেলার মনোহরদী থানা এলাকা থেকে দুজন ডাকার রাতে যাত্রী বেশে গাড়িতে উঠে। ডাকাত সদস্য ও ড্রাইভার দুলাল হেলপারকে বুঝতে না দিয়া কাভার্ড ভ্যান সহ কিশোরগঞ্জ শহরে গিয়ে রাশেদকে কৌশলে ম্যাঙ্গো জুসের মধ্যে মাত্রাতিরিক্ত ঘুমের ট্যাবলেট মিশিয়ে পান করালে সে অচেতন হয়ে পরে।

পরে তারা কাভার্ড ভ্যানটি সিলেট না নিয়ে টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতী এলাকায় নিয়ে আসে এবং ঢাকা টাঙ্গাইল রোডের পাশে ঘুমন্ত অবস্থায় হেলপার রাশেদকে ফেলে দিয়ে বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ এ মালামাল বিক্রির জন্য আনলোড করে ক্রেতার অপেক্ষায় থাকে।

সোমবার দিবাগত রাতে বগুড়া ডিবি পুলিশ গোপন তথ্যের ভিত্তিতে শিবগঞ্জ থানার শ্যামপুর গ্রামের একটি বাড়ি থেকে লুট হওয়া মালামাল উদ্ধার করে।

ওই সময় ইয়াছিন নামের এক ডাকাত সদস্যকেও গ্রেফতার করা হয়। তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে একই উপজেলার মোকামতলা এলাকা এবং ধুনট থানার পূর্ব ভরোনসাকি অফিসারপাড়া এলাকা থেকে ডাকাত দলের সর্দার জাহাঙ্গীর আলম সহ আন্তঃজেলা ডাকাত দলের অন্যান্য সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাদের দেওয়া তথ্যে মতে বগুড়া ও সিরাজগঞ্জ জেলার সীমান্তবর্তী চান্দাইকোনা বাজার হইতে লুণ্ঠিত কাভার্ড ভ্যান (ঢাকা মেট্রো-উ২২-৭২৪৩) উদ্ধার করা হয়।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল ও মিডিয়া মুখপাত্র) ফয়সাল মাহমুদ জানান, গ্রেফতার হওয়া সবাই পেশাদার ডাকাত চক্রের সদস্য। এই মামলায় তাদের বিরুদ্ধে। প্রচলিত আইনে মামলা দায়ের করা হবে।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button