আইন ও অপরাধ

বগুড়ায় পুলিশের বিরুদ্ধে উদ্ধার করা ৮৮ ফেনসিডিল বিক্রির অভিযোগ

বগুড়ায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে ১৯৮ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করে তার মধ্য থেকে ৮৮ বোতল ফেনসিডিল বিক্রির অভিযোগ উঠেছে এক পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। অভিযোগ উঠার পর জেলা পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা বিপিএম বার নিজেই বিষয়টি তদন্ত করছেন বলে জানাগেছে।

বিজ্ঞাপন

অভিযোগ উঠার পর গতকাল মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) রাতেই মামলার আলামতসহ নথিপত্র জেলা গোয়েন্দা শাখায় স্থানান্তর করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

খোজ নিয়ে জানা যায়, গত ৩ এপ্রিল রাতে বগুড়ার মোকামতলায় চেক পোষ্ট বসান শিবগঞ্জ সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আরিফুল ইসলাম সিদ্দিকী। সেসময় ঢাকাগামী পিংকি পরিবহন সাইফুল ইসলাম নামে এক মাদক ব্যবসায়ী ১১০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করে মামলা দেয়া হয়। কিন্তু অভিযোগ উঠেছে সে সময় ১৯৮ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে এবং বাঁকি ৮৮ বোতল ফেনসিডিল বিক্রি করে দেয়া হয়েছে। তা বিক্রি করেছেন সহকারী পুলিশ সুপার আরিফুল ইসলাম সিদ্দিকী।

বুধবার (২১ এপ্রিল) দুপুরে শিবগঞ্জ সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আরিফুল ইসলাম সিদ্দিকী বিষয়টি ফেনসিডিল বিক্রির বিষয়টি মিথ্যা দাবি করেন। তিনি বলেন, আমরা চেকপোস্ট বসিয়ে মাদক উদ্ধার করেছি। পিংকি পরিবহন থেকে সাইফুল ইসলাম নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে ১১০ বোতল ফেনসিডিল সহ গ্রেফতার করা হয়। এবং ১১০ বোতল উল্লেখ করে মামলা দেয়া হয়েছে। মাদক বিক্রির বিষয়টি মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত।

এদিকে ১১০ বোতল ফেনসিডিল সহ গ্রেফতার সাইফুল ইসলামের নামে দেয়া মামলার বাদী মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই সুজাউদ্দৌলা। তিনি বলেন, সাইফুল ইসলামকে ১১০ বোতল ফেনসিডিল সহ মামলা দেয়া হয়েছে। সেসময় ১১০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়।

গতকাল ২০ এপ্রিল মোকামতলা পুলিশ তদন্তকেন্দ্রে অভিযোগের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা বিপিএম (বার) গিয়েছিলেন। সেখানে পুলিশ সুপার নিজেই ফেনসিডিল উদ্ধারের সময় উপস্থিত পুলিশ সদস্য ছাড়াও মামলার স্বাক্ষীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক শাহিন-উজ-জামান বলেন, এধরনের একটি অভিযোগের তদন্ত এসপি স্যার নিজেই করছেন। আর মামলাটি ডিবিতে স্থানান্তর হয়েছে। জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক জানান, মাদকের নিয়মিত মামলাটি পেয়েছি।

অভিযোগের বিষয় নিয়ে পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমি নিজেই বিষয়টি তদন্ত করছি।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button