বগুড়া জেলা

উদ্ধারকৃত ফেন্সিডিলের সংখ্যার গড়মিল বগুড়ায় এএসপি’র বদলি ও ২ পুলিশ কর্মকর্তা প্রত্যাহার

বগুড়ায় উদ্ধারকৃত ১৯৮ ফেন্সিডিলের মধ্যে ৮৮ বোতল গড়মিলের ঘটনায় শিবগঞ্জ-সোনাতলা সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আরিফুল ইসলাম সিদ্দিকীকে বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজির কার্যালয়ে বদলি করা হয়েছে। একই ঘটনায় শিবগঞ্জ থানার মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক শাহিন উজ্জামান ও ফেন্সিডিল উদ্ধারের ঘটনায় দায়ের করা মামলার বাদী উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুজাউদ্দৌলাকে প্রত্যাহার করে বগুড়া পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

২১ এপ্রিল বুধবার দুপুরে বগুড়ার পুলিশ সুপারের আদেশে তাদেরকে প্রত্যাহার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা পুলিশের মিডিয়া মুখপাত্র ও সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফয়সাল মাহমুদ।

শিবগঞ্জ উপজেলার মোকামতলা তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ সদস্যরা ৩ এপ্রিল রাতে ঢাকার দিকে যাওয়া পিংকী পরিবহন নামে একটি বাসে অভিযান চালিয়ে ফেন্সিডিল উদ্ধার করে। ঘটনার পরের দিন ৪ এপ্রিল সাইফুল ইসলাম নামের একজনকে আসামী করে এস আই সুজাউদ্দৌলা শিবগঞ্জ থানায় ১১০ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার দেখিয়ে মামলা করে। তবে অভিযোগ উঠেছে, পিংকী পরিবহনের যাত্রী সাইফুল ইসলামের কাছ থেকে ১৯৮ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করেছিল। পুলিশ। তবে মামলায় তা ১১০ বোতল দেখিয়ে ৮৮ বোতল ফেন্সিডিল পুলিশের এক কর্মকর্তা সোর্সের মাধ্যমে বিক্রি করে দিয়েছে।

পুরো অভিযানের নেতৃত্ব দেন শিবগঞ্জ সার্কেলের সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার আরিফুল ইসলাম সিদ্দিকী।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফয়সাল মাহমুদ জানান, উদ্ধারকৃত ফেন্সিডিলের সংখ্যার গড়মিলের ঘটনায় এএসপির বদলি এবং দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button