খেলাধুলা

সেই জুয়াড়িকে সাকিবের নম্বর দিয়েছিলেন হিথ স্ট্রিক!

সাকিব আল হাসানের ফোন নম্বর জুয়াড়িদের দিয়েছিলেন ফিক্সিংকাণ্ডে নিষিদ্ধ হওয়া বাংলাদেশের সাবেক বোলিং কোচ হিথ স্ট্রিক। এ ঘটনায় বিস্মিত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। এমন মন্তব্য করেছেন বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস।

বিজ্ঞাপন

তিনি জানান, ভবিষ্যতে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলে কোচ নিয়োগের ব্যাপারে আরও সতর্ক থাকবে বোর্ড।

বিজ্ঞাপন

ফিক্সিংয়ে সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে বাংলাদেশের সাবেক বোলিং কোচ হিথ স্ট্রিককে ৮ বছর নিষিদ্ধ করেছে আইসিসি।

বিভিন্ন সূত্র বলছে, স্ট্রিকই সাকিবের নম্বর দিয়েছিলেন জুয়াড়ি দীপক আগারওয়ালকে। কারণ, আইসিসি সাকিবের নিষেধাজ্ঞার সময় যে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছিল। সেখানে বলা হয়েছিল, সাকিবের ফোন নম্বর যে দিয়েছিল দীপ আগারওয়ালকে সে কাছের কেউ। কিন্তু, ঐ কাছের ব্যক্তিটির নাম প্রকাশ করেনি আইসিসি। তবে, স্ট্রিকের তদন্তের পর যোগসূত্র মিলে যাচ্ছে।

২০১৭ সালে বিপিএলে ঢাকা ডাইনামাইটন্সের অধিনায়ক সহ তিন ক্রিকেটারের ফোন নম্বর দিয়েছেন জুয়াড়িকে। সেই সময় ঢাকার অধিনায়ক ছিলেন সাকিব আল হাসান।

সূত্র আরও মেলে, ২০১৮ সালের শুরুতে বাংলাদেশ, জিম্বাবুয়ে ও আফগানিস্তানকে নিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজে দলের তথ্যও পাচার করেন স্ট্রিক। ওই সিরিজে সাকিবের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছিলো আইসিসি। এত যোগ সূত্র ছাড়াও, অভিযোগ আছে। দুই বছর বাংলাদেশের বোলিং কোচ হিসেবে সফল হবার পরেও, অনৈতিক কার্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে বিসিবি হিথ স্ট্রিকের সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করেনি। যদিও ব্যাপারটি স্বীকার না করলেও, এমন আভাস এই বোর্ড পরিচালকের।

২০০২ সাল থেকে বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলেছেন হিথ স্ট্রিক। টাইগারেদর বোলিং কোচ হিসেবেও বেশ সফল। স্বাভাবিকভাবেই এই জিম্বাবুয়ান বাংলাদেশের ক্রিকেটার থেকে শুরু করে বোর্ড কর্তাদের ছিলেন দারুণ আস্থাভাজন। কিন্তু, তার এমন কাণ্ডে বিব্রত বিসিবি।

শুধু ক্রিকেটাররাই নয়। এখন ক্রিকেট তৈরির কারিগররাও ঝুঁকে পড়ছেন অনৈতিক পথে। তাই খুবই সতর্ক ক্রিকেট বোর্ড।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button