সারাদেশ

বন্ধ হলো রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়ির পর্যটনকেন্দ্র

করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় শেষ পর্যন্ত দুসপ্তাহের জন্য বন্ধ হলো রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়ির সব পর্যটনকেন্দ্র। কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে কক্সবাজারেও। সৈকতে নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে পর্যটক চলাচল। নামতে দেয়া হচ্ছে না সাগরে।

গত কয়েকদিনের বিপুল ভিড়বাট্টার পর বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতের ভিন্ন এক দৃশ্য। উত্তাল সাগর। বালিয়াড়িতে নেই ছাতাযুক্ত কিটকট, বীচ বাইক। ঢেউ মাড়িয়ে ছুটে চলা ওয়াটার বাইকও বন্ধ। সাগরে গোসলে নামতে দিচ্ছেননা লাইফগার্ড কর্মীরা। করোনার উর্ধগতিতে ৬৫ দফা নির্দেশনায়ও কাজ না হওয়ায় এখন এমন কড়াকড়ি কক্সবাজার সৈকতে।

বিজ্ঞাপন

এমন পদক্ষেপে হতাশা জানালেও স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে নানা অজুহাত পর্যটক ও সৈকতের ব্যবসায়ীদের। 

বিজ্ঞাপন

করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য, পর্যটনকেন্দ্রগুলোতে মানুষের ঢল ও স্বাস্থ্যবিধি না মানা নিয়ে উদ্বেগ জানিয়ে আসছিলেন বিশেষজ্ঞ ও সরকারের দায়িত্বশীল ব্যক্তিরা। তাই প্রশাসন বলছে, কেউ নির্দেশনা না মানলে জরিমানার পাশাপাশি দেয়া হবে কারাদন্ডের মতো সাজা।

এদিকে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রাথমিকভাবে ২ সপ্তাহের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়ির সব পর্যটনকেন্দ্র।  পরিস্থিতি অনুসারে পরে সময়সীমা বাড়ানোর ইঙ্গিত দিয়েছে প্রশাসন। 

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button