আন্তর্জাতিক খবর

বোরকা নিষিদ্ধের বিষয়ে যা বললেন শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী

২০১৯ সালের ২১ এপ্রিল শ্রীলঙ্কায় একাধিক গির্জা ও হোটেলে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ২৫৩ জন নিহত হন। ভয়াবহ এই আত্মঘাতি হামলার পর দেশটি মুখমণ্ডল ঢাকা নিষিদ্ধ ঘোষণার পদক্ষেপ নেয়। মুখমণ্ডলের যেকোনো ধরনের পোশাক, যা ব্যক্তিকে শনাক্ত করার ক্ষেত্রে বাধা সৃষ্টি করে, তা নিষিদ্ধ করবে। জাতীয় নিরাপত্তা নিশ্চিতে এই পদক্ষেপ নেওয়ার সিদ্ধান্তের কথাও জানায় শ্রীলঙ্কার সরকার। কিন্তু শুক্রবার (১৯ মার্চ) শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপক্ষে বাংলাদেশে এসে বোরকার বিষয়ে সু-স্পষ্ট বার্তা দিলেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর তৃতীয় দিন শুক্রবার অনুষ্ঠানে রাজাপক্ষে যোগ দেন।

মুসলিম নারীদের জন্য শ্রীলঙ্কায় বোরকা পরা নিষিদ্ধ করা হয়নি বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপক্ষে। শুক্রবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে এক বৈঠকে শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপক্ষে এ তথ্য জানান।

বোরকা নিষিদ্ধের জন্য কিছু মহলের পক্ষ থেকে দাবি তোলা হলেও শ্রীলঙ্কার সরকার তা এখনো গ্রহণ করেনি বলেও জানান তিনি। এছাড়া শ্রীলঙ্কায় মুসলিমদের দাহ করা হচ্ছে বলে গণমাধ্যমে অপপ্রচার রয়েছে উল্লেখ করে মাহিন্দা রাজাপক্ষে জানান, মুসলিম রীতি অনুসারে সম্প্রতি ৩৯ জন মুসলিমকে সমাহিত করা হয়েছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

বৈঠকে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে স্বাক্ষরিত কিছু চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক বাস্তবায়নের জন্য ড. মোমেন শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করেন এবং তা বাস্তবায়নের চেষ্টা করবে বলে সে দেশের প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন। বৈঠকে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে চলতি মাসের ১৩ মার্চ শ্রীলঙ্কার জননিরাপত্তা মন্ত্রী শারাথ বীরসেকের বরাদ দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্সে সংবাদপ্রকাশ করা হয় যে, শ্রীলঙ্কায় মুসলিম নারীদের বোরকা পরিধানে নিষেধাজ্ঞা জারি করতে যাচ্ছে দেশটি।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button