জাতীয়

সুপ্রিমকোর্ট প্রাঙ্গনে জানাজা শেষে ব্যারিস্টার মওদুদ এর শেষ বিদায়

সুপ্রিমকোর্ট প্রাঙ্গনে বিএনপি’র সদ্য প্রয়াত নেতা ও খ্যাতিমান আইনজীবী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

আজ শুক্রবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে সুপ্রিমকোর্টের সামনে এই নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে তার প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানান সহকর্মীরা।

জানাজায় অংশ নেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, আপিল বিভাগের বিচারপতি মো. নুরুজ্জামান, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি মিফতাহ উদ্দিন চৌধুরী, বিচারপতি সৈয়দ জিয়াউল করিম, বিচারপতি মো. মনিরুজ্জামান, অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এসএম মুনীর, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি বর্তমান সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, সাবেক সম্পাদক ব্যারিস্টার এএম মাহবুব উদ্দিন খোকন, রাগীব রউফ চৌধুরী, একেএম এহসানুর রহমানসহ জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম এবং সুপ্রিম কোর্টের অসংখ্য সাধারণ আইনজীবী।

তবে অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন এবং সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির নবনির্বাচিত সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল মতিন খসরু অসুস্থতার কারণে জানাজায় উপস্থিত হতে পারেননি বলে জানান ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল।

এর আগে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বিএনপি’র সদ্য প্রয়াত নেতা ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন সর্বস্তরের মানুষ। শুক্রবার সকাল ৯টায় শহীদ মিনারে আনা হয় তাকে। বিএনপি ও বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতারা সেখানে উপস্থিত ছিলেন। শহীদ মিনার থেকে বেলা ১০টার দিকে তার মরদেহ সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গনে নেওয়া হয়।

গত ১৬ মার্চ (মঙ্গলবার) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন মওদুদ আহমদ। গতকাল বৃহস্পতিবার (১৮ মার্চ) বিকাল ৬টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছে তার মরদেহ। দলের সিনিয়র নেতারা তার মরদেহ গ্রহণ করেন এবং ফুলেল শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।

বিএনপির দফতর বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে, শুক্রবার সকাল ১১টায় নয়াপল্টনে বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে মওদুদ আহমদের জানাজা ও দলের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে। এরপর হেলিকপ্টারে নোয়াখালীতে গ্রামের বাড়িতে নেওয়া হবে তার মরদেহ। দুপুর আড়াইটায় নোয়াখালীর কবিরহাট ডিগ্রি কলেজ মাঠে, বিকাল ৪টায় বসুরহাট কোম্পানীগঞ্জ সরকারি মুজিব মহাবিদ্যালয় মাঠে ও বিকাল সাড়ে ৫টায় মরহুমের নিজ বাসভবনের (মানিকপুর, কোম্পানীগঞ্জ) সামনে মরহুমের জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে, বাবা-মায়ের কবরের পাশে দাফন সম্পন্ন করা হবে।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button