খেলাধুলা

শহিদ আফ্রিদির মেয়েকে বিয়ে করছেন শাহিন আফ্রিদি

বছর তিনেক আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখার পরই নামের মিলের কারণে খোঁজ করা হয়েছিল, পাকিস্তানের কিংবদন্তি অলরাউন্ডার শহিদ আফ্রিদির সঙ্গে কি কোনো আত্মীয়তার সম্পর্ক রয়েছে তরুণ বাঁহাতি পেসার শাহিন আফ্রিদির? তখন উত্তর ছিল, ‘না!’

তবে অচিরেই এই ‘না’কে ‘হ্যাঁ’তে পরিণত করার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে চলেছে শহিদ আফ্রিদি ও শাহিন আফ্রিদির পরিবার। দুই বছরের মধ্যে শহিদ আফ্রিদির বড় মেয়ে আকসা আফ্রিদিকে বিয়ে করবেন তরুণ পেসার শাহিন আফ্রিদি।

শনিবার সন্ধ্যায় এ খবর চাউর হলে হইচই পড়ে যায় চারিদিকে। পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যমগুলো নিশ্চিত করেছে, এটা স্রেফ গুঞ্জন নয়। শাহিন আফ্রিদির বাবা আয়াজ খান নিজে নিশ্চিত করেছেন শহিদ আফ্রিদির মেয়ের সঙ্গে তার ছেলের বিয়ের কথা।

আয়াজ খান সংবাদমাধ্যমে বলেছেন, দুই পরিবারের মধ্যে বন্ধুত্বের সম্পর্ক অনেক পুরোনো। আমাদের পক্ষ থেকে বিয়ের প্রস্তাবটা দেয়া হয়েছিল। শহিদ আফ্রিদির পরিবার এতে রাজি হয়েছে। শিগগিরই বাগদান অনুষ্ঠান সেরে ফেলা হবে।

তবে এ খবরটি মূলত সবার আগে প্রচার করেছিলেন এক পাকিস্তানি সাংবাদিক। যিনি টুইটারে লেখেন, ‘দুই পরিবারের অনুমতি নিয়েই আমি শাহিন আফ্রিদি ও শহিদ আফ্রিদির মেয়ের বিয়ে সম্পর্কিত গুঞ্জনটি পরিষ্কার করতে চাই। বিয়ের প্রস্তাবে রাজি হয়েছে শহিদ আফ্রিদির পরিবার।’

এখনই যে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হবে না, সেটিও জানিয়েছেন ইহতিশাম উল হক নামের ঐ সাংবাদিক। তিনি লিখেছেন, ‘আপাতত আনুষ্ঠানিকভাবে বাগদান সেরে রাখা হবে। পরে দুই বছর পর মেয়ের পড়ালেখা শেষ হলে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা।’
পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদি পাঁচ সন্তানের জনক। তার পাঁচ মেয়ের নাম হলো আকসা, আনসা, আজওয়া, আসমারা ও আরওয়া। এদের মধ্যে ২০ বছর বয়সী আকসা সবার বড়। তিনিই শাহিন আফ্রিদির স্ত্রী হতে চলেছেন।

এদিকে শাহিন আফ্রিদির বয়সও ২০। তিনি ২০১৮ সালের এপ্রিলে টি-টোয়েন্টি খেলার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নাম লেখান। একই বছরের ডিসেম্বরে সুযোগ পান টেস্ট ক্রিকেটেও। এখনও পর্যন্ত আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ৫৮ ম্যাচে ১১৭ উইকেট শিকার করেছেন শাহিন। সূত্র : ডন

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button