আন্তর্জাতিক খবর

কাতার বিশ্বকাপের প্রস্তুতিতে সহস্রাধিক বাংলাদেশি কর্মীর মৃত্যু

কাতারে ফুটবল বিশ্বকাপ প্রস্তুতির কাজে গত এক দশকে সাড়ে ছয় হাজারেরও বেশি শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের অনুসন্ধানে উঠে এসেছে এমন তথ্য। এ শ্রমিকদের সবাই বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, নেপাল ও শ্রীলঙ্কা থেকে কাতারে কাজ করতে গিয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন

প্রতিবেদন অনুযায়ী, প্রতি সপ্তাহে গড়ে দক্ষিণ এশিয়ার ১২ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয় মধ্যপ্রাচ্যের এ দেশটিতে। যার মধ্যে কেবল বাংলাদেশের শ্রমিক রয়েছেন ১ হাজার ১৮ জন।

বিজ্ঞাপন

২০২২ সালে ফুটবল বিশ্বকাপ আয়োজনে বিশাল কর্মযজ্ঞ চলছে কাতারে। তবে নজিরবিহীন এই কর্মযজ্ঞে গত দশ বছরে প্রাণ হারিয়েছেন সাড়ে ছয় হাজারের বেশি অভিবাসী শ্রমিক। দক্ষিণ এশিয়ার দেশ বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, নেপাল ও শ্রীলঙ্কার অভিবাসী শ্রমিকরাই এই ১০ বছরে বিশ্বকাপ প্রকল্পে সবচেয়ে বেশি প্রাণ হারিয়েছেন।

সম্প্রতি ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের এক অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১০ সালের ডিসেম্বরের যে রাতে কাতার বিশ্বকাপ আয়োজনের অনুমতি পেয়েছিল, সে রাত থেকে এ পর্যন্ত সাড়ে ছয় হাজারের বেশি অভিবাসী শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। প্রতি সপ্তাহে গড়ে প্রাণ হারিয়েছেন ১২ জন অভিবাসী শ্রমিক। বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, নেপাল ও শ্রীলঙ্কার সরকারি পরিসংখ্যানের বরাত দিয়ে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে দ্য গার্ডিয়ান।

২০১০ থেকে ২০২০ সালের মধ্যে ভারতের ২ হাজার ৭শ’ ১১, নেপালের ১ হাজার ৬শ’ ৪১, বাংলাদেশের ১ হাজার ১৮, পাকিস্তানের ৮শ’ ২৪ এবং শ্রীলঙ্কার ৫শ’ ৫৭ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যুর প্রকৃত সংখ্যা আরও বেশি হতে পারে বলে ঐ প্রতিবেদনটিতে দাবি করা হয়েছে। তবে কেনিয়া ও ফিলিপিন্সের অভিবাসী শ্রমিকদের পরিসংখ্যান ওই প্রতিবেদনে যুক্ত করা হয়নি।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button