বগুড়া

নৌকা উন্নয়নের প্রতিক, নৌকা গণতন্ত্রের প্রতিক- এসএম কামাল


বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন বলেছেন, নৌকা উন্নয়নের প্রতিক, নৌকা গণতন্ত্রের প্রতিক। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মানে নৌকার বিকল্প নেই। জননেত্রী শেখ হাসিনা সোনার বাংলা গড়ে তুলতে কাজ করছেন। অপরদিকে ধানের শীষ বোমাবাজদের প্রতিক। ধানের শীষ সন্ত্রাসীদের প্রতিক। ধানের শীষ জঙ্গি অর্থায়নের প্রতিক। ধানের শীষ অর্থপাচারকারীদের প্রতিক।

এদেশের মানুষ ধানের শীষকে চায় না। উন্নয়নে নৌকা প্রতিকে ভোট দিতে চায়। সারাদেশে উন্নয়নে নৌকার বিকল্প নেই। দেশের প্রতিটি অঞ্চলে প্রতিটি পাড়ায় পাড়ায় উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছ। জননেত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়নে লর জয়গান আজ বিশ্বজুড়ে। করোনা মোকাবেলায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন শেখ হাসিনা। এদেশের মানুষ বিনামূল্যে টিকা নিচ্ছেন।
১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করে হায়েনা ভেবেছিল দেশটাকে আবার পাকিস্তানে রুপান্তর করবে। জিয়াউর রহমান গণতন্ত্র হত্যা করে পিস্তল ঠেকিয়ে ক্ষমতায় এসছিল। তার ছেলেও বিদেশে বসে এদেশের মনোনয়ন বানিজ্য করেছে।


তিনি আরও বলেন, তারেক রহমান বগুড়াকে নিয়েও বানিজ্য করে যাচ্ছেন। সদর আসনে প্রথমে মির্জা ফখরুলকে দিলেন। পরে আবার তার কাছে কেড়ে নিয়ে টাকার বিনিময়ে অন্য আসনের জিএম সিরাজকে এমপি বানালেন। আবার এই পৌর নির্বাচনে বাহিরের লোককে মনোনয়ন দিয়েছেন। তারেক রহমান বগুড়ার মানুষের সাথে প্রতারণায় লিপ্ত রয়েছেন। তাই এই বগুড়াকে বাঁচাতে হলে, উন্নয়নের জোয়ারে ভাসাতে হলে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীকে বিজয়ী করতে হবে। নৌকা মানেই উন্নয়ন। নৌকা মানেই গণতন্ত্রের বিজয়। বগুড়ার উন্নয়নে বগুড়ার মানুষকে চর ভুলনকরা চলবে না। নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে শেখ হাসিনাকে মেয়র উপহার দিয়ে সকল কাজ বুঝে নিন।


বগুড়ায় রোববার (২২ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে পৌর আওয়ামীলীগ আয়োজিত নির্বচাবী কর্মী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।


পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি রফিনেওয়াজ খান রবিনের সভাপতিত্বে নির্বাচনী কর্মী সভায় আরও বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মমজিবুর রহমান মজনু, টি জামান নিকেতা, এ্যাড:রেজাউল করিম মন্টু, আসাদুর রহমান দুলু,সাগর কুমার রায়, জাকির হোসেন নবাব, শাহাদৎ আলম ঝুনু, আবু সুফিয়ান সফিক, ওবাইদুল হাসান ববি, শুভাশিষ পোদ্দার লিটন, জুলফিকার রহমান শান্ত, নাইমুর রাজ্জাক তিতাস, অসীম কুমার রায়, সারিয়াকান্দি পৌরসভার মেয়র মতিউর রহমান মতি।


জেলা আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সুলতান মাহমুদ খান রনির উপস্থাপনায় সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগ নেতা এ্যাড:আমান উল্লাহ আমান, আল রাজি জুয়েল, নাসরিন রহমান সীমা, শেরিন আনোয়ার জর্জিস, মাশরাফি হিরো, তপন চক্রবর্তী, রুহুল মোমিন তারিক, এস এম সাজাহান, খালেকুজ্জামান রাজা, মাহফুজুল ইসলাম ভুইয়া রুমেল, সহিদুল ইসলাম দুলু, সাইফুল ইসলাম বুলবুল, রুমানা আজিজ রিংকি,আলমগীর হোসেন স্বপন, সোহরাব হোসেন সান্নু, গৌতম কুমার দাস, মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি খাদিজা খাতুন সেফালি, মাফুজুল ইসলাম রাজ, শ্রমিক লীগের সভাপতি আ:সালাম, সাজেদুর রহমান শাহিন, আমিনুল ইসলাম ডাবলু, এ্যাড:লাইজিন আরা লীনা, ডালিয়া নাসরিন রিক্তা, রাসেল আহম্মেদ কনক, রাশেকুজ্জামান রাজন প্রমুখ।

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button