জাতীয়

করোনার টিকাদান কার্যক্রম উদ্বোধন বিকেলে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে করোনার টিকাদান কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন। প্রথম দিন টিকা পাবেন সম্মুখযোদ্ধা ২৫ জন। বুধবার (২৭ জানুয়ারি) গণভবন থেকে বিকেল সাড়ে ৩টায় কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালেই ভার্চুয়ালি টিকাদান কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

এদিকে মঙ্গলবার সারাদেশে একযোগে ৭ ফেব্রুয়ারি করোনার টিকাদান কর্মসূচি শুরু হবে বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। বিকেলে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভ্যাকসিন প্রদান কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে তিনি এ কথা জানান।

বিজ্ঞাপন

দেশে করোনা প্রতিরোধে শুরু থেকেই নিবেদিত ছিল কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল। তাই মহামারি থেকে বাঁচতে বহুল প্রতীক্ষিত টিকাদান কর্মসূচিও শুরু হচ্ছে হাসপাতালটি থেকে।

গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে ৫ জনের দেহে টিকা প্রয়োগ সরাসরি দেখবেন প্রধানমন্ত্রী। উদ্বোধনী দিনে টিকা পাবেন মোট ২৫ জন। পরদিন রাজধানীর ৫টি হাসপাতালে ৫০০ স্বাস্থ্যকর্মীর ওপর টিকা প্রয়োগ করা হবে। আর ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে সারাদেশে একযোগে টিকাদান শুরু হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, বুধবার প্রধানমন্ত্রী টিকাদান কর্মসূচি উদ্বোধনের পর শুরু হয়ে যাবে সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে টিকা নেওয়ার নিবন্ধন প্রক্রিয়াও। তবে যারা App-এ নিবন্ধন করতে পারবেন না, তারা জেলা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে গিয়েও নিবন্ধনের সুযোগ পাবেন।

এদিকে ভারতের সেরাম থেকে বেক্সিমকোর কেনা অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার তিন কোটি ডোজের প্রথম লটের ৫০ লাখ ডোজের ছাড়পত্র দিয়েছে ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর।

এ ছাড়া টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিলে সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে বলে জানিয়েছে অধিদফতর।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button