শেরপুর উপজেলা

শেরপুরে ১০৯ ফোন পেয়ে বাল্যবিবাহ বন্ধ করলো এসিল্যান্ড

বগুড়া জেলার শেরপুর উপজেলায় ১০৯ নাম্বারে ফোন পেয়ে মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারী) বিকেলে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ১৩ বছর বয়সী এক কিশোরীর বিয়ে বন্ধ করলো উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোছা. সাবরিনা শারমীন।

জানা যায়, উপজেলার ভবানীপুরের জামালপুর গ্রামের মোবারক আলীর ১৩ বছরের মেয়ের সাথে সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জ উপজেলার এক ছেলের সাথে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। এ সময় সচেতন এক ব্যাক্তি বাল্য বিয়ে বন্ধের হট লাইন নাম্বারে(১০৯) ফোন করে উপজেলা নির্বাহী কমর্তাকে বিষয়টি অবগত করলে ঘটনাস্থলে গিয়ে তিনি বাল্য বিয়ে বন্ধ করেন।

এ সময় মেয়ের অভিভাবককে ১ হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয় এবং মেয়ের আঠারো বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত মেয়ে তার অভিভাবকের জিম্মায় থাকবে মর্মে মুচলেকা গ্রহণ করা হয়। উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সুবীর পাল ও শেরপুর থানা পুলিশ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোছা. সাবরিনা শারমীন বলেন, বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭ অনুসারে মেয়ের অভিভাবককে অর্থদন্ড প্রদান করা হয়েছে। উপস্থিত সকলকে বাল্যবিবাহের কুফল ও শাস্তি সম্পর্কে সচেতন করা হয়েছে এবং বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন,২০১৭ সম্পর্কে সকলকে সচেতন করা হয়।

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button
error: Content is protected !!