আইন ও অপরাধ

আদালতে দায় স্বীকার দিহানের

রাজধানীর কলাবাগানে কিশোরীকে (১৭) ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে করা মামলায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন গ্রেপ্তার একমাত্র আসামি ফারদিন ইফতেখার দিহান (১৮)। জবানবন্দি রেকর্ড শেষে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

শুক্রবার (৮ জানুয়ারি) দুপুরের পর ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন দিহান। আদালতে ১৬৪ ধারায় তার জবানবন্দি রেকর্ড করেন ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশিদ।

এর আগে দুপুর ১টার সময় দিহানকে আদালতে নেওয়া হলে তিনি স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে রাজি হন। তখন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কলাবাগান থানা পুলিশ পরিদর্শক আ ফ ম আসাদুজ্জামান আদালতে তা রেকর্ড করার আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালতের বিচারক তা রেকর্ড করেন।

এদিকে ময়নাতদন্ত শেষে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান সোহেল মাহমুদ জানান, বিকৃত যৌনাচা‌রের কার‌ণে অ‌তি‌রিক্ত রক্তক্ষর‌ণে মৃত্যু হয় ওই শিক্ষার্থীর।

বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) দুপুরের দিকে কলাবাগানের লেক সার্কাস এলাকার ডলফিন গলির একটি বাসায় মাস্টারমাইন্ড স্কুলের ‘ও’ লেভেলের ওই শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। পরে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলে আনোয়ার খান মর্ডান হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় ওই দিন রাতেই দিহনকে আসামি করে কলাবাগান থানায় ধর্ষণ ও হত্যা মামলা করেন ওই কিশোরীর বাবা।

মামলার এজাহারে বলা হয়, অভিযুক্ত ফারদিন বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে ফোন করে গ্রুপ স্টাডির কথা বলে ওই কিশোরীকে তার বাসায় নিয়ে যায়। তারপর সেখানে তাকে ধর্ষণ করে। এ সময় ওই কিশোরী অজ্ঞান হয়ে গেলে ফারদিন তাকে আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে জরুরি বিভাগে নিয়ে যায়। পরে দুপুর পৌনে ২টার সময় হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে কলাবাগান থানার একটি দল হাসপাতালে যায় এবং ফারদিনকে আটক করে। পাশাপাশি ওই কিশোরীর মরদেহ সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button