ধুনট উপজেলা

ধুনটে আসামির বাড়িতে আগুন দেয়ার অভিযোগ বাদীর বিরুদ্ধে

বগুড়া জেলার ধুনট উপজেলায় এসিড মামলার আসামি বাদশা মিয়ার বাড়ির খড়ের গাদায় অগ্নিসংযোগের অভিযোগ উঠেছে বাদী ও তার পরিবারের লোকজনের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার (৩১ ডিসেম্বর) রাত ৮টার দিকে আসামির বাড়ির আঙিনায় খড়ের গাদায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

অগ্নিসংযোগের অভিযোগে বাদশা মিয়ার লোকজন এসিড মামলার ভুক্তভোগী রিপা খাতুনকে (৩৫) ঘটনাস্থল থেকে আটক করে থানায় সোপর্দ করেছে।

রিপা খাতুন উপজেলার চিথুলিয়া গ্রামের আবু তাহেরের স্ত্রী।

এ ঘটনায় রাতেই বাদশা মিয়ার ছেলে আইয়ুব আলী থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। ওই অভিযোগে আবু তাহের, তার স্ত্রী রিপা খাতুন ও ছেলে পাপ্পুকে আসামি করা হয়েছে।

জানা গেছে, উপজেলার চিথুলিয়া গ্রামের বাদশা মিয়ার সাথে প্রতিবেশী আবু তাহেরের দীর্ঘদিন ধরে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলছিল। গত ১৭ জুন দুপুরের দিকে আবু তাহেরের স্ত্রী রিপা খাতুন বাড়ির ভেতর রান্নাঘরে লাকড়ি গোছানোর কাজ করছিলেন। এ সময় দূর্বৃত্তরা ঘরের বেড়ার ফাঁকা স্থান দিয়ে রিপার শরীরে এসিড নিক্ষেপ করেন। এতে রিপার পিঠের ৪০ শতাংশ পুড়ে যায়।

এ ঘটনায় রিপার স্বামী আবু তাহের বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন। ওই মামলায় বাদশা মিয়াসহ চারজনকে আসামি করা হয়। এ মামলাটি তদন্ত করে বগুড়া আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) রুহুল আমীন খান।

থানা হাজুতে আটক রিপা খাতুন বলেন, এসিড মামলা থেকে রক্ষা পেতে আসামিরা অগ্নিসংযোগের নাটক সাজিয়ে আমাকে থানায় দিয়েছে।

ধুনট ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার শামীম রেজা বলেন, ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় কোনো অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে অগ্নিকাণ্ডের কারণ নির্ণয় করে প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বলেন, দীর্ঘদিন ধরে জমিজমা নিয়ে উভয় পরিবারের মধ্যে পাল্টাপাল্টি মামলা ও অভিযোগের জের ধরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে এক নারীকে আটক করে থানায় সোপর্দ করেছে। ঘটনাটি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button