আন্তর্জাতিক খবর

স্পুটনিক ভ্যাকসিন নিচ্ছেন পুতিন

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে অবশেষে রাশিয়ার তৈরি স্পুটনিক ভি ভ্যাকসিন গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। খোদ দেশটির রাষ্ট্রপ্রধান কেন ভ্যাকসিন নিচ্ছেন না তা নিয়ে নানা বিতর্ক চলার মধ্যে রবিবার (২৭ ডিসেম্বর) এমন ঘোষণা দিলো ক্রেমলিন।

করোনাভাইরাসের নিরাপদ টিকা উদ্ভাবনে বিশ্বজুড়ে তীব্র প্রতিযোগিতার মধ্যে ১১ আগস্ট বিশ্বের প্রথম ভ্যাকসিন হিসেবে ‘স্পুটনিক ভি’ অনুমোদনের ঘোষণা দেয় রাশিয়া। তবে রাশিয়ার ভ্যাকসিন অনুমোদনের ঘোষণার পরই এর নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করতে শুরু করে বিভিন্ন দেশ। তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের আগেই এই টিকার অনুমোদন দেওয়া হলেও রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জানান, এই ভ্যাকসিন তার মেয়ের শরীরে প্রয়োগ করা হয়েছে। মেয়ের শরীরের তাপমা্ত্রা খানিক বেড়ে গিয়েছিল, তবে অন্য কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। পুতিন-কন্যার শরীরে এই টিকা প্রয়োগ করা হলেও, রুশ প্রেসিডেন্ট নিজে তা গ্রহণ করেননি। পরে ক্রেমলিন জানায়, চূড়ান্ত পর্যায়ের পরীক্ষা শেষ হয়নি এমন টিকা পুতিন নিতে পারেন না। এ নিয়ে নানা গুঞ্জন ও বিতর্ক চলছিলো।

রবিবার (২৭ ডিসেম্বর) রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় টিভি চ্যানেল রোসিয়া ওয়ানকে ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেন, ‘তিনি (পুতিন) বলেছেন ভ্যাকসিন নেবেন। ভ্যাকসিন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সকল আনুষ্ঠানিকতা শেষ হওয়ার অপেক্ষায় আছেন তিনি।’

এর আগে ৬৮ বছর বয়সী পুতিন বলেছিলেন, রাশিয়ার ভ্যাকসিন কার্যকর ও নিরাপদ। ভ্যাকসিন না নেওয়ার কোনও কারণ আছে বলে তিনি মনে করেন না। তবে এটি সহজলভ্য হওয়ার অপেক্ষায় আছেন।

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button