জাতীয়

জননেত্রী শেখ হাসিনা অসম্ভবকে সম্ভব করে বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছেন আমাদের সক্ষমতা: এসএম কামাল

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও রাজশাহী বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা এস এম কামাল হোসেন বলেছেন, আমাদের একজন জননেত্রী শেখ হাসিনা রয়েছেন বলেই দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে স্বপ্নের পদ্মা সেতু আজ দৃশ্যমান। বিশ্বের সবচেয়ে প্রাজ্ঞ, অভিজ্ঞ ও নিষ্ঠাবান রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা। দেশকে শান্তিময় করতে জনগনের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে, রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা তাই করেছেন। বঙ্গবন্ধু কন্যার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে শত বাধা অতিক্রম করে পদ্মাসেতুর সর্বশেষ স্প্যান বসানো হয়েছে। মানবিক ও সাহসী নেতৃত্বের অধিকারী জননেত্রী শেখ হাসিনা অসম্ভবকে সম্ভব করে গোটা বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছেন আমাদের সামর্থ ও সক্ষমতা। প্রধানমন্ত্রীর দৃঢ় সিদ্ধান্ত ও অসীম সাহসিকতায় নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু দৃশ্যমান হয়েছে। এ যেন বিজয়ের মাসে আরো একটি বিজয়।

তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার সেতু নির্মানে কাজ শুরু করলে দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্র শুরু হয়। বিশ্বব্যাংক দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনে। বিদেশি ঋণদাতা বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানও অর্থ প্রদান স্থগিত করলে ২০১২ সালের ৯ জুলাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের জনগণের অর্থে পদ্মা সেতু নির্মাণের সিদ্ধান্তের কথা জানান।দূর্নীতি নিয়ে কানাডার আদালতের রায়ে বলা হয়, ‘এই মামলায় যেসব তথ্য দেয়া হয়েছে, তা অনুমানভিত্তিক, গালগল্প এবং গুজবের বেশি কিছু নয়।’ ২০১৪ সালে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দুই দফা অনুসন্ধান করেও বিশ্বব্যাংকের ওই অভিযোগের কোনো সত্যতা পায়নি। বাংলাদেশ পদ্মা সেতুর মতো বিশাল কর্মযজ্ঞ সম্পন্ন করতে পারে, সেই আর্থিক ও মানসিক সক্ষমতার বাস্তব প্রমাণ হয়েছে বৃহস্পতিবার পদ্মা সেতুতে সর্বশেষ স্প্যান স্থাপনের মাধ্যমে। এই জয় দেশী বিদেশী চক্রান্তের বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের জয়। আমাদের একজন জননেত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্র পরিচালনায় আছেন বলেই তার নেতৃত্বে বহু অর্জনের সঙ্গে স্বপ্নের পদ্মা সেতু আজ পুরো দৃশ্যমান হয়েছে। দেশের আর্থিক সক্ষমতা আছে বলেই এত বড় কাজ সম্পন্ন করা সম্ভব হয়েছে।
তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবার এবং মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে অতীতে অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছে, এখনও হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের অবমাননা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী কোটি বাঙালির হৃদয়ে আঘাত। ভাস্কর্য নিয়ে নতুন করে দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টির অপচেষ্টা চলছে। জনগণকে সাথে নিয়ে অতীতের ন্যায় অপশক্তির অপতৎপরতা মোকাবেলা করা হবে। তিনি দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অদম্য গতিতে দেশের এগিয়ে যাওয়া ও কোভিড পরিস্থিতি মোকাবিলাসহ দেশ ও জনগনের সার্বিক উন্নয়নে সবাইকে ঐকবদ্ধ থাকার আহবান জানান।

স্বপ্নের পদ্মা সেতুর স্প্যান বসানোর কাজ সুসম্পন্ন হওয়ায় দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন, ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে শুক্রবার বগুড়া জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি কথাগুলো বলেন।

বিকেল ৩ টায় শহরের সাতমাথা মুজিব মঞ্চে সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বগুড়া জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি ভিপি সাজেদুর রহমান সাহীন।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার রহমান শান্ত’র সঞ্চালনায় এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ্ব মজিবর রহমান মজনু, সাধারন সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু।

প্রধান বক্তা ছিলেন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রিয় সহ- সভাপতি ম.আব্দুর রাজ্জাক।

বক্তব্য রাখেন জেলা আ’লীগের সহ- সভাপতি টি জামান নিকেতা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক একেএম আসাদুর রহমান দুলু, সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ শাহাদত আলম ঝুনু, এ্যাড.জাকির হোসেন নবাব, উপপ্রচার সম্পাদক মাহফুজুল ইসলাম রুমেন, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান সফিক, স্বেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্রিয় সদস্য মেহেদী হাসান রবিন, জেলা যুবলীগ সভাপতি শুভাশীষ পোদ্দার লিটন, সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম ডাবলু, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ডালিয়া নাসরিন রিক্তা, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি নাইমুর রাজ্জাক তিতাস, সাধারণ সম্পাদক অসিম কুমার রায়। উপস্থিত ছিলেন এনামুল বারী টুটুল, প্রভাষক মনিরুজ্জান মনির, গোলাম হোসেন, মোহাম্মাদ আলী সিদ্দিক, নাজমুল কাদির শিপন, খুররম, রেজাউল করিম রিয়াদ, আরিফুল হক বাপ্পী, নুরুন্নবী সরকার, মশিউর রহমান মামুন, সিরাজুল ইসলাম রতন, শাহিন আলম, খালেকুন্নাহার পলি, গোলাম মোক্তদির লেমন, আব্দুল ওয়াদুদ পাপ্পু, মীর জোবায়ের জয়, রশ্মি স্বর্না, মিনহাজুল ইসলাম, নাসিমুল বারী নাসিম, আতাউর রহমান আতা, মশিউর রহমান মন্টি, লিটন শেখ সহ জেলা শাখা, পৌর ও সদর এবং বিভিন্ন উপজেলা শাখার নেতৃবৃন্দ।

সম্পর্কিত পোস্ট

Bogura Live
Back to top button
error: Content is protected !!