জাতীয়

পদ্মা সেতুর ৫ হাজার ৮৫০ মিটার দৃশ্যমান

দেশের সর্ববৃহৎ মেগাপ্রকল্প দক্ষিণাঞ্চলের জনগণের স্বপ্নের পদ্মা সেতুর কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। আগামী ১৫ দিনে শেষ হবে সবগুলো স্প্যান বসানোর কাজ। গতকাল মাঝ নদীতে ১০ এবং ১১ নম্বর পিলারের ওপর বসানো হয়েছে ৩৯ নম্বর স্প্যান। এর মাধ্যমে দৃশ্যমান হলো পদ্মা সেতুর ৫ হাজার ৮৫০ মিটার।

গতকাল সকাল সাড়ে ৯টায় মুন্সীগঞ্জের মাওয়া কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে ৩ হাজার ৬শ’ টন ধারণক্ষমতার তিয়ান-ই ভাসমান ক্রেনটি দিয়ে ধূসর রঙের ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যরে ৩ হাজার ১৪০ টন ওজনের স্প্যানটি ১০ এবং ১১ নম্বর পিলারের নিকট নিয়ে যাওয়া হয়। দুপুর সাড়ে ১২টায় সফলভাবে সেতুর পিলারের উপর স্প্যানটি বসানো হয়।


নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান আব্দুল কাদের জানান, আগামী ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে মাঝ নদীতে বাকি ২টি স্প্যান ৪০ এবং ৪১ বসানোর পরিকল্পনা রয়েছে। স্প্যান ২টি বসানো হলে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া এবং অপর পার জাজিরা প্রান্তের সাথে সেতুর সংযোগ ঘটবে। দৃশ্যমান হবে ৬.১৫ কিলোমিটারের পুরো পদ্মা সেতুর অবকাঠামো।

গত অক্টোবর এবং চলতি মাসে প্রতি সপ্তাহে একটি করে মাওয়া প্রান্তে ৮টি স্প্যান বসানো হয়। স্প্যান বসানোর পাশাপাশি ১ হাজার ৮৪৮টি রোডওয়ে স্লাব বসানোর কাজ দ্রæত গতিতে এগিয়ে চলছে। ইতোমধ্যে ১ হাজার ২৩৮টি স্লাব বসানো হয়েছে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ আশা করছে আগামী ২০২১ সালের মধ্যে যান চলাচলের জন্য সেতুটি উন্মুক্ত হবে। দক্ষিণাঞ্চলের জনগণের দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্নের বাস্তবায়ন হবে। অবসান হবে যাতায়াতের দুর্ভোগ আর দু’প্রান্তে গড়ে উঠবে অর্থনৈতিক জোন। উন্নতি ঘটবে জীবনযাত্রার মানের।

সম্পর্কিত পোস্ট

Bogura Live
Back to top button
error: Content is protected !!