খেলাধুলা

আরিফুলের ম্যাজিকে বরিশালের বিপক্ষে খুলনার জয়

আরিফুল ম্যাজিকে জয় পেল জেমকন খুলনা। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের উদ্বোধনী দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে তামিম ইকবালের দল ফরচুন বরিশালকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে তারা। বরিশালের দেয়া ১৫৩ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে এক বল বাকি থাকতে জয়ে পৌঁছে যায় মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য খুলনার প্রয়োজন ছিল ২২ রান। এমন সময় স্ট্রাইক প্রান্তে ছিলেন আরিফুল হক। বোলিংয়ে ছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ওভারের প্রথম দুই বলেই ছক্কা হাঁকান আরিফুল। পরের বলটি ডট হয়। কিন্তু চতুর্থ ও পঞ্চম বলে ছক্কা হাঁকিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন তিনি। ৩৪ বলে ৪৮ রান করে অপরাজিত থাকেন আরিফুল। দুর্দান্ত এই ইনিংস খেলায় ম্যাচ সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারও পেয়েছেন আরিফুল।

বরিশালের বোলারদের মধ্যে তাসকিন আহমেদ ২টি, সুমন খান ২টি, মেহেদী হাসান মিরাজ ১টি ও কামরুল ইসলাম রাব্বী ১টি করে উইকেট শিকার করেন।

মঙ্গলবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে খুলনার ইনিংসের প্রথম ওভারেই জোড়া আঘাত হানেন তাসকিন আহমেদ। ফিরিয়ে দেন দুই ওপেনার বিজয় ও ইমরুলকে। পরে দলের অভিজ্ঞ দুই ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ ও সাকিব দলকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন। কিন্তু বেশিদূর নিতে পারেননি।

পঞ্চম ওভারে মিরাজের বলে লং অনে ইমনের হাতে ধরা পড়েন রিয়াদ। পরের ওভারে সাকিবকে ফেরান সুমন খান। পরে ৪২ রানের জুটি গড়েন জহুরুল ইসলাম ও আরিফুল হক। ২৬ বলে ৩১ রান করে ইনিংসের ১৩তম ওভারে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ হন তিনি। সাত নম্বর পজিশনে নেমে শামীম হোসেন ১৮ বলে ২৬ রান করেন।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৫২ রান সংগ্রহ করে বরিশাল। দলটির টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান পারভেজ হোসেন ইমন ৪২ বলে ৫১ রান করেন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৭ রান করেন তৌহিদ হৃদয়। ১০ বলে ২১ করেন মহিদুল ইসলাম অঙ্কন। ৫ বলে ১২ করে অপরাজিত থাকেন তাসকিন আহমেদ।

খুলনার বোলারদের মধ্যে পেসার শহীদুল ইসলাম ৪ ওভারে ১৭ রান দিয়ে ৪টি উইকেট শিকার করেন। নিষেধাজ্ঞা থেকে ফিরে প্রথম ম্যাচে নেমে সাকিব আল হাসান ৩ ওভারে ১৮ রান দিয়ে ১টি উইকেট নেন। এছাড়া হাসান মাহমুদ ২টি ও শফিউল ইসলাম ২টি উইকেট শিকার করেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ফল: ৪ উইকেটে জয়ী জেমকন খুলনা।

ফরচুন বরিশাল: ১৫২/৯ (২০ ওভার)

(মিরাজ ০, তামিম ১৫, পারভেজ ৫১, আফিফ ২, হৃদয় ২৭, শুক্কুর ১১, অঙ্কন ২১, আমিনুল ৫, সুমন ০, তাসকিন ১২*, কামরুল ২*; শফিউল ২/২৭, আল-আমিন হোসেন ০/৩২, হাসান মাহমুদ ২/৪৫, শফিউল ৪/১৭, সাকিব ১/১৮, মাহমুদউল্লাহ ০/৮)।

জেমকন খুলনা: ১৫৫/৬ (২০ ওভার)

(বিজয় ৪, ইমরুল ০, সাকিব ১৫, মাহমুদউল্লাহ ১৭, জহুরুল ৩১, আরিফুল ৪৮*, শামীম ২৬, শহীদুল ৮*; তাসকিন ২/৩৩, সুমন ২/২১, মিরাজ ১/৩৬, আমিনুল ০/২০, কামরুল ১/৩২, আফিফ ০/১২)।

ম্যাচ সেরা: আরিফুল হক (জেমকন খুলনা)।

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button
error: Content is protected !!