জাতীয়

দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে নিন্মচাপ, সন্ধ্যা নামতেই কনকনে শীত

বাংলাদেশের উপকূল থেকে দেড় হাজার কিলোমিটার দূরে দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপটি আজ সোমবার ঘনীভূত হয়ে নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। এটি আরও ঘনীভূত হতে পারে। তবে অতি দূরবর্তী অবস্থানের কারণে এই নিম্ননচাপে বাংলাদেশের আবহাওয়ায় তেমন প্রভাব আপাতত নেই। এরফলে দেশের সমুদ্র বন্দরসমূহে এখনও সতর্ক সঙ্কেত নেই। নিম্ননচাপের গতিমুখ দক্ষিণ ভারতের অন্ধ্র উপকূলের দিকে।

এদিকে আকাশ অনেকটা মেঘমুক্ত এবং জলীয়বাষ্পও খুব কম থাকায় উত্তর, উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে হিমালয়ের হিমেল বাতাসের জোর বেড়ে গেছে। আজ সন্ধ্যা নামতে না নামতেই দেশের বেশিরভাগ জেলায় কনকনে ঠা-া হাওয়ায় ভর করে শীতের মাত্রা বেড়েই চলেছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের সর্বনি¤œ তাপমাত্রার রেকর্ড উত্তরাঞ্চলের নওগাঁ জেলার বদলগাছী উপজেলায়। সেখানে তাপমাত্রার তাপমাত্রার পারদ নেমে গেছে ১০.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। রাজধানী ঢাকায়ও তাপমাত্রা ছিল ১৬.২ ডিগ্রিতে। দেশের অধিকাংশ স্থানে রাতের তাপমাত্রা ১৫ ডিগ্রির নিচে নেমে যায়।

অগ্রহায়ণ মাসের প্রথম সপ্তাহ পার হতে না হতেই শীত জেঁকে বসতে শুরু করেছে। সেই সঙ্গে হালকা থেকে মাঝারি কুয়াশায় ঢাকা পড়ছে শহর-জনপদ, নদ-নদী অববাহিকা।

আগামী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে জানা গেছে, সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত এবং দিনের তাপমাত্রা কিছুটা বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকবে।

বঙ্গোপসাগরে গতকাল রোববার সৃষ্ট লঘুচাপটি আজ আরও ঘনীভূত হয়ে সুস্পষ্ট লঘুচাপ এবং পরে নিম্ননচাপে পরিণত হয়েছে।

নিম্ননচাপ পরিস্থিতি-
আবহাওয়ার সতর্কবার্তায় জানা গেছে, দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি ঘনীভূত হয়ে একই এলাকায় নিম্ননচাপে পরিণত হয়েছে। এটি চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১৬৫০ কিলোমিটার দক্ষিণপশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১৫৮৫ কি.মি. দক্ষিণ-পশ্চিমে, মংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১৫৬৫ কি.মি. দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ১৫৫০ কি.মি. দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল। নি¤œচাপটি আরও ঘনীভূত হয়ে পশ্চিম, উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে।

নিম্ননচাপে কেন্দ্রের ৪৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘন্টায় ৪০ কি.মি., যা দমকা অথবা ঝড়োহাওয়ার আকারে ৫০ কি.মি. পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। নিম্ননচাপ কেন্দ্রের কাছে সাগর মাঝারি ধরনের উত্তাল রয়েছে।

চট্টগ্রাম ,কক্সবাজার, মংলা এবং পায়রা সমুদ্র বন্দরকে পরবর্তী নির্দেশনার জন্য সাবধানতার সাথে পর্যবেক্ষণ করতে বলা হয়েছে।

উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারসমূহকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

সম্পর্কিত পোস্ট

হাইলাইট
Close
Back to top button