করোনা আপডেট

করোনায় সংকটাপন্ন রোগীর সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে

করোনায় আক্রান্ত হয়ে, সংকটাপন্ন রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। কমছে খালি আইসিইউর সংখ্যা। অন্যদিকে জনবলের অভাবে শতভাগ ভেন্টিলেটর ব্যবহার করতে পারছে না হাসপাতালগুলো।

এমন অবস্থায় করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হলে, গুরুতর অসুস্থ রোগীর নিবিড় সেবা পাওয়ার সুযোগ আরও সংকুচিত হতে পারে। তবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, প্রয়োজনে আইসিইউর সংখ্যার বাড়ানো সম্ভব, তবে ভেন্টিলেটর পরিচালনার জন্য দক্ষ জনবলের যোগান দেবার সুযোগ আপাতত নেই।

কুর্মিটোলা হাসপাতালে ১০টি আইসিইউ শয্যার সবগুলোতেই রোগী আছে। অর্থাৎ সাধারণ শয্যায় চিকিৎসাধীন ২৮৬ জনের কারো অবস্থার অবনতি হলে, নিবিড় পরিচর্যা পাবার সুযোগ নেই।

একই অবস্থা, মহাখালীর সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতাল, ফুলবাড়িয়ার সরকারি কর্মচারী হাসপাতালের। অন্য সরকারি হাসপাতালগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি আইসিইউ খালি আছে শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার আর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। নয়টি আর ছয়টি।

দেশজুড়েই একই অবস্থা। সাধারণ শয্যার মোটমুটি ৭০ শতাংশের মতো খালি থাকলেও, আইসিউর সংকট প্রকট হচ্ছে। করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর, আগের চেয়ে বেশি সংখ্যক রোগীর অবস্থা সংকটাপন্ন হচ্ছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মুখপাত্র মো. হাবিবুর রহমান জানান,’দ্বিতীয় ঢেউয়ের সম্ভবনা যেটা আছে, সত্যিকার অর্থে সেটা যদি হয় আমাদের যে আইসিইউ বেড আছে সেগুলো সব অকুপাইড হবার পর যদি দেখা যায়, আরও আইসিইউ বেড প্রয়োজন তাহলে আমরা ক্রমান্বয়ে অতীতে যেভাবে আইসিইউ বেড বৃদ্ধি করেছি, সামনেও কিন্তু প্রয়োজনে আইসিইউ বেড বৃদ্ধি করবো।’

তবে ভেন্টিলেটর সমস্যার সমাধান নেই স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হাতে। সরকারি হাসপাতাল গুলোতে প্রায় ৩শ আর বেসরকারিগুলোতে ৪০০ ভেন্টিলেটর আছে। দক্ষ জনবল নেই, তাই অর্ধেকেরও বেশি ব্যবহার করা যাচ্ছে না। মো. হাবিবুর রহমান আরও জানান,’ভেন্টিলেটরগুল­ো সাধারণত ব্যবহার করে এনেসথেসিস্ট, আর আমরা চাইলেও ছয় মাস বা এক বছর প্রশিক্ষণ দিয়ে কাউকে, এনেসথেসিস্ট বানাতে পারবো না। তবে আমরা যেটা করতে পারবো, সেটা হলো সারা দেশে যে এনেসথেসিস্ট আছে তাদেরকে সুষম বন্টনের মাধ্যমে কভিড হাসপাতাল যেখানে আইসিইউ হাসপতাল আছে, বেড আছে সেখানে যেন তাদেরকে পদায়ন করা যায়, সেই বিষয়টা আমরা মাথায় রেখেছি।’

এদিকে শীতের শুরুতেই সংক্রমণ সংখ্যায় এশিয়াতে শীর্ষ পাঁচে চলে এসেছে বাংলাদেশ। তাই করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের শঙ্কাও প্রবল হচ্ছে।

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button
error: Content is protected !!