Uncategorized

বীর মুক্তিযোদ্ধা শওকত আলীর মরদেহে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

জাতীয় সংসদের সাবেক ডেপুটি স্পিকার ও বীর মুক্তিযোদ্ধা কর্নেল (অব.) শওকত আলীর মরদেহে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং জাতীয় সংসদের স্পিকার, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের ব্যক্তিবর্গসহ সর্বস্তরের মানুষ।

সোমবার (১৬ নভেম্বর) বিকেল সাড়ে ৩টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে তার মরদেহ নেয়া হলে তার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। গার্ড অব অনার প্রদানের পর রাষ্ট্রপতির পক্ষে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাষ্ট্রপতির সহকারী সামরিক সচিব কর্নেল রাজু আহমেদ।

এরপর প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন প্রধানমন্ত্রীর সহকারী সামরিক সচিব লেফটেন্যান্ট কর্নেল রাজিব আহমেদ। জাতীয় সংসদের স্পিকারের পক্ষে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন উইং কমান্ডার সাঈদ মো. ওবায়দুল্লাহ।

রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী এবং স্পিকারের শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পক্ষে শ্রদ্ধা জানাতে এসে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেন, ‘তিনি ছিলেন বঙ্গবন্ধুর অত্যন্ত বিশ্বস্ত সহযোগী। কর্নেল শওকত আলীদের মতো বীর যারা আছেন তারাই বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দেশকে যুদ্ধ করে স্বাধীন করেছেন। তার শূন্যস্থান কীভাবে পূরণ হবে আমাদের জানা নেই। তার এই প্রস্থানে পুরো দেশ একজন বর্ণাঢ্য রাজনীতিবিদকে হারাল। যেই আদর্শে তিনি অবিচল ছিলেন আমরা সেই লক্ষ্য বাস্তবায়নে কাজ করব।’

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও শরীয়তপুর-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য বি এম মোজাম্মেল হক বলেন, ‘তৎকালীন পাকিস্তানের সামরিক কর্মকর্তা হিসেবে তার ভূমিকা ছিল গৌরবোজ্জ্বল। সেই কারণেই আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলায় বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে তাকেও ৩৭ নম্বর আসামি হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। ১৯৭৫ এর পরে তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘ধারাবাহিকভাবে এভাবে তাকে পদচ্যুত করার পরও তিনি বঙ্গবন্ধুর যেই লক্ষ্য বাংলাদেশের মানুষের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক মুক্তি তা বাস্তবায়নের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন। পরবর্তীতে তিনি সংসদ সদস্য হয়েছেন। জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার হয়েছেন। মৃত্যুর পূর্বক্ষণ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য বঙ্গবন্ধু কন্যাকে সহায়তা করেছেন।’

সোমবার সকালে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় জাতীয় সংসদের সাবেক ডেপুটি স্পিকার শওকত আলী শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল শওকত আলী শরীয়তপুর-২ আসন থেকে ছয় বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button
error: Content is protected !!