কাহালু উপজেলা

কাহালুতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মারপিট, অবরুদ্ধ এক পরিবার

বগুড়ার কাহালু উপজেলায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে একটি পরিবারকে মারপিট-ভয়ভীতি দেখিয়ে অবরুদ্ধ করে রাখার ঘটনায় কাহালু থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেও কাউকেত গ্রেপ্তার করেননি। এ ঘটনায় জামাইয়ের ক্ষমতার দাপটে শ্বশুর পক্ষ বেপরোয়া হয়ে উঠেছে বলে অভিযোগ করেছে প্রতিপক্ষ।

বিজ্ঞাপন

মামলা সূত্রে জানা গেছে, কাহালু উপজেলার জামগ্রাম ইউনিয়নের শিয়ালা ভবানীপুর গ্রামের মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে আবু নাসেরের সাথে তার বড় ভাই আবু সাইদসহ অন্য ভাইদের জমি নিয়ে বিরোধ চলছে। এর মধ্যে আবু নাসের, তার স্ত্রী ও ছেলেকে মারপিট করে নাসেরকে বাড়িতে অবরুদ্ধ করে রেখেছে।

বিজ্ঞাপন

শুধু তাই নয়, তার বাড়ির আশেপাশে প্রাণনাশের হুমকিসহ বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করা হচ্ছে। এতে উক্ত নাসের ও তার স্ত্রী তহমিনা বেগম নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছেন। তাদের কলেজ পড়ুয়া এক ছেলেকে মেরে রক্তাক্ত করার পর সে নিরাপত্তাহীনতার কারণে পালিয়ে আত্মীয়ের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছে।

এ ঘটনায় বগুড়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তহমিনা বেগম বাদী হয়ে মারপিট ও সোনার চেইন ছিনতাই ঘটনায় মামলা করেছেন। এ ঘটনার পর পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দুপক্ষকে শান্ত থাকার নির্দেশ দিয়েছে।

কিন্তু উল্লেখিত আবু সাইদের জামাই জামগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি খোকনের ক্ষমতার দাপটে তারা (শ্বশুর পক্ষ) বেপরোয়া আচরণ করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। প্রতিনিয়ত নাসের পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত আবু সাইদ তার ভাইয়ের পরিবারকে অবরুদ্ধ, মারপিট ও ভয়ভীতির অভিযোগ অস্বীকার করেন।

এ ব্যাপারে কাহালু থানার এসআই হাফিজুর রহমান বলেন, বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করেছি। উভয় পক্ষকে শান্ত থাকার জন্য বলা হয়েছে। কেউ হুমকি দিলে থানায় অভিযোগ দিতে পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button