বগুড়া সদর উপজেলা

বসন্ত-ভালোবাসা ও একুশকে ঘিরে জমজমাট বগুড়ার ফুলের বাজার

প্রকৃতিকে রাঙাতে ব্যস্ত পলাশ, শিমুল আর কৃষ্ণচূড়া; কচি সবুজ পাতা আর বাহারি ফুলেরা বসন্তের রঙে রঙিন করে তুলেছে প্রকৃতি। সেই রঙে কোকিলও মাতিয়ে তুলেছে কুহু… কুহু….. সুরবীণায়। আজ পহেলা ফাল্গুন। জীবনে আর একটি বসন্তের আগমন। বাংলার প্রকৃতিতে এসেছে ঋতুরাজ বসন্তের প্রথম মাস। ‘আহা, আজি এ বসন্তে/ কত ফুল ফোটে/ কত বাঁশি বাজে/ কত পাখি গায়…।’

বিজ্ঞাপন

আজ ‘পহেলা ফাল্গুন’ আর আগামীকাল বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। এই দুটি দিনকে ঘিরেই সারাদেশের ফুলের দোকানগুলোতে পড়ে বিক্রি ধুম। বগুড়ার সাতমাথার ফুলের দোকান গুলোতে ফুল বিক্রির পরিমাণ বেড়ে যায় অনেকগুণ। পহেলা ফাল্গুন ও বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে ফুলের দোকানে ফুলের তোড়া তৈরিতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে ফুল-শ্রমিকেরা। ফুল সাজানো আর বিকিকিনিতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে দোকানীরা। আজ এমনই দৃশ্য চোখে পড়ল বগুড়ার প্রাণকেন্দ্র সাতমাথার ফুলের দোকান গুলোতে।

এই দুই দিনে ফুলের বিক্রির হার বেড়ে যায় বহুগুণ। এবারের চিত্রটিও ঠিক তাই। পহেলা ফাল্গুনে খেপায় তাজা ফুল গুঁজেনি এমন তরুণী খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। আজ সকাল থেকেই শাহবাগ মোড়ের ফুলের দোকানগুলোতে ব্যস্ত সময় পার করতে দেখা গেছে সংশ্লিষ্ট দোকানী ও কর্মচারীদের। সেখানে ভিড় জমিয়েছেন প্রচুর ক্রেতা।

বসন্তের প্রথম দিন, ভালোবাসা দিবস এবং মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ফুলের সর্বাধিক চাহিদা থাকে। একই মাসে মাত্র এক সপ্তাহের ব্যবধানে বড় তিনটি দিবস হওয়ায় ব্যবসায়ীরাও বিশাল প্রস্তুতি নিয়ে থাকেন। কয়েক বছর ধরে ১৩ ও ১৪ ফেব্রুয়ারিকে ফুল বাণিজ্যের সবচেয়ে বড় সুযোগ হিসেবে ধরে নিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button