শাজাহানপুর উপজেলা

বগুড়ার শাজাহানপুরে নিরাপত্তা কর্মী সহ নারীর ট্রেনে কাঁটা মৃতদেহ উদ্ধার

বগুড়ার শাজাহানপুরে পাপ্প (২৩) নামের ইসলামি ব্যাংকের নিরাপত্তা কর্মীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে স্থানীয় পুলিশ। নিহতের মৃত্যুর সঠিক কারণ নিশ্চিত না হলেও তার লাশ অকুস্থলে ফেলে দেয়া হয়েছে বলে পুলিশের প্রাথমিক ধারনা।

বিজ্ঞাপন

বুধবার বেলা সকালে শাজাহানপুর থানার মাদলা দ্বিতীয় বাইপাস মহাসড়কে একটি ব্রিজের নিচে থেকে পুলিশ তার মৃতদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

নিহত পাপ্পু জয়পুরহাট জেলা সদরের দক্ষিণ খাস পাহুঞ্জা গ্রামের জিল্লুর রহমানের পুত্র।
অপরদিকে পৃথক এক ঘটনায় বুধবার সকালে গাবতলী রেল স্টেশনএলাকায় দ্রুতগামী ট্রেনের ধাক্কায় অঞ্জলী রানী (৪৫) নামের এক গৃহবধু নিহত হয়েছেন। তিনি গাবতলী থানার দাড়াইল গ্রামের বিরেশ চন্দ্র সরকারের স্ত্রী।

পুলিশের একটি সূত্রে জানা যায়, পাপ্পু গত ৩/৪মাস আগে ইসলামি ব্যাংকে চাকুরী পায়। পরে সে ঢাকার সাভার ইসলামি ব্যাংকে শাখায় নিরাপত্তা কর্মী হিসেবে কাজে যোগ দেন। সূত্রটি আরো জানায়, গত কয়েকদিন আগে থেকে পাপ্পু শারীরিক ভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ে। গত মঙ্গলবার দুপুরে তিনি সাভার থেকে জয়পুরহাটে তার বাড়ীর উদ্দেশ্যে রওনা দেন। বুধবার বেলা ১১টার দিকে স্থানীয় লোকজন মাদলা ব্রিজের নিচে তার মৃতদেহ দেখতে পেয়ে স্থানীয় পুলিশকে খবর দেয়।

পরে পুলিশ এসে অকুস্থল থেকে নিহতের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বগুড়া শজিমেক হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। শাজাহানপুর থানার পুলিশ এর একটি দায়িত্বশীল এর ধারনা পাপ্পু অসুস্থ অবস্থায় গাড়িতে মারা গেলে বিষয়টি টের পেয়ে ঝামেলা এড়াতে তাকে মাদলা ব্রিজের নিচে ফেলে দিয়ে যাওয়া হয়।

এব্যপারে বগুড়া রেলওয়ে পুলিশের এসআই মুহা কায়কোবাদ জানান, বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ‘সান্তাহার থেকে লালমনিরহাট গামী পদ্মরাগ ট্রেনটি গাবতলী ষ্টেশন অতিক্রম করার পূর্ব মূর্হুতে রেল ঘুমটি এলাকায় লাইন পারাপাররত অঞ্জলী রানী নামের ওই গৃহবধুকে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হন।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button