উপজেলাবগুড়া সদর উপজেলা

জিপিএ-৫ না পাওয়ায় বগুড়ায় ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করলেন ছাত্রী!

এইচএসসি পরীক্ষায় ৪.৭ পায় মোছা: ফেনি আক্তার । তার প্রত্যাশা ছিল জিপিএ ৫। কিন্তু কাঙ্খিত ফল না পাওয়ায় ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছে সে!

ঘটনাটি ঘটেছে বগুড়া জেলার ঠনঠনিয়া তেতুলতলা এলাকায়। আজ দুপুর ১.৪০মিনিটে ঠনঠনিয়া তেতুলতলা এলাকায় মোহসিন আলীর ডা: ভিলার ভাড়া বাসায় এ ঘটনাটি ঘটে।
জানা গেছে, গত ২মাস আগে মেয়েকে মেডিকেলে ভর্তি করানোর জন্য কোচিং করাতে এই বাসা ভাড়া নেয়া হয়। মোছা: ফেনি রংপুর ক্যান্টনমেন্ট স্কুল আন্ড কলেজ থেকে এবার এইচএসসি পরীক্ষা দেয়।
আজ এইচএসসি পরীক্ষার রেজাল্ট প্রকাশ হবার পর জানতে পারে জিপিএ-৪.৭ পায় মোছা: ফেনি আক্তার । মোছা: ফেনি আক্তার এর ধারণা ছিল সে এ প্লাস পাবে। তার চেয়ে কম মেধাবী অনেকে ছাত্রীই এ প্লাস পেয়েছে বলে ফেনির মন খুবই খারাপ ছিল।

বারবার সে একই কথা বলছিল। এবং বিষয়টি তিনি মেনে নিতে পারছিলোনা। সে তার মায়ের সাথে বাসায় কান্নাকাটি করেন ও বারবার বলেন এজীবন আমি আর রাখবো না।
কান্নাকাটির এপর্যায়ে সে তার রুমে প্রবেশ করে এবং দরজা ভেতর থেকে বন্ধ করে দেয়। তারপর সাথে সাথে ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস নেয় মোছা: ফেনি।
ঘটনাটির সঙ্গে সঙ্গে মেয়েটির মা চিৎকার দিলে বাসা ওয়ালা এবং বাড়ির আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে এসে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ফেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আমরা ঘটনাটি জানার সাথে সাথে বাড়িতে যাই এবং দরজা ভাঙ্গি এরপর দেখি মেয়েটি ফ্যানের সাথে ঝুলে আছে। এরপর বগুড়া সদর থানায় ফোন দিয়ে ওসিকে অবগত করে তার অনুমতিতে মেয়েটিকে ফ্যান থেকে নেমে মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বিজ্ঞাপন

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button
ভাষা নির্বাচন