বগুড়ার ইতিহাসশেরপুর উপজেলা

শেরপুর উপজেলা সম্পর্কিত তথ্য




এই উপজেলার উত্তরে শাজাহানপুর উপজেলা পুর্বে ধুনট উপজেলা, দক্ষিনে রায়গঞ্জ উপজেলা, তাড়াস উপজেলা, পশ্চিমে সিংড়া উপজেলা, নন্দীগ্রাম উপজেলা অবস্থিত।


নামকরনের ইতিহাসঃশেরপুর নাম করনের পেছনে রয়েছে মজবুত ঐতিহাসিক ভিত্তি। বাস্তবে নামকরণ অপেক্ষা ইহার ঐতিহ্যই যে অধিকতর গুরুত্বপূর্ণ এবং সুপ্রাচীন এতে কোন সন্দেহ নেই। তবে সেই প্রাচীনত্বটি খূজে বের করা কেবল দুঃসাধ্যই নয়, বরং রীতমত এক অসম্ভব ব্যাপার। অধুনা শেরপুর অপেক্ষা প্রাগৈতিহাসিক শেরপুর ছিল সর্বাধিক সুপ্রসিদ্ধ। শেরপুর নামকরনের পূর্বেও এ স্থানটি তার নিজস্ব মহিমায় ছিল মূর্তমান। প্রাগৈতিহাসিক এই স্থানটির ভিন্ন কোন কোন নাম ছিল০ কি-না, তা বলা কঠিন; তবে সেই অজ্ঞাত যুগে যদি স্থানটি উত্তর বঙ্গের প্রবেশদ্বার অথবা বরেন্দ্র তিলক নামে অভিহিত করা হতো, তবে তা মোটেই বেমানান হতো না।


পাঠান নৃপতি শেরশাহ শূরী ছিলেন এক অবিসংবাদিত ও পরম জনপ্রিয় সম্রাট । বাংলার জনগণ তাঁর প্রশংসায় ছিল পঞ্চমুখ। সীমিত সময়ের মধ্যে তিনি এখানকার জনগনের কল্যানার্থ অনেক অনেক উল্লেযোগ্য কাজ করেন। এজন্যই তার সুনামের নজরানা হিসেবে বগুড়া জেলায় এই স্থানটি শেরপুর নামে পরিচিহ্নিত হয়েছে। তদানীন্তন বাংলার পূর্তগীজ গভর্নর ভনডেন ব্রুক কর্তৃক বিরচিত বঙ্গ ভূমির মানচিত্রে, তিনি শেরপুরকে Ceerpoor Mirt অর্থাৎ Sherpur Murcha নামে উল্লেখ করেছেন। তাছাড়া সমসাময়িক অপরাপর ঐতিহাসিকগন ও এ স্থানটিকে শেরপুর নামেই উল্লেখ করেছেন। সম্ভবতঃ ১৫৪০-১৫৮০ খ্রীষ্টাব্দের মধ্যে কোন এক সময় এ স্থানটির নাম করণ হয়ে থাকবে। ঐতিহাসিকগণ অনুমান করেন যে, শেরশাহ অথবা তাঁর কোন সেনাপতি এই নামটি প্রবর্তন করে থাকবেন ।


শেরপুর উপজেলা ইতিহাসঃ ১৮২১ খ্রিষ্টাব্দের পুর্বে শেরপুর থানা রাজশাহী জেলার একটি থানা হিসেবে পরিচিত ছিল। ১৮২১ খ্রিষ্টাব্দে বগুড়া জেলা প্রতিষ্ঠিত হলে, রাজশাহী জেলা হইতে আদমদিঘী, শেরপুর, নওখিলা ও বগরা থানা, রংপুর জেলা হইতে দেওয়ানগঞ্জ ও গোবিন্দগঞ্জ এবং দিনাজপুর জেলা হইতে লালবাজার, ক্ষেতলাল,ও বদলগাছি থানা নিয়ে সর্বসমেত নয়টি থানা দ্বারা ”বগরা জেলা” সংগঠিত হয়। ১৯৮৩ খ্রিষ্টাব্দে শেরপুর উপজেলা হিসেবে উন্নীত হয়।


প্রশাসনিক এলাকাঃ

শেরপুর উপজেলার ইউনিয়নসমূহ হচ্ছে – ১.কুসুম্বী ইউনিয়ন । ২.গাড়ীদহ ইউনিয়ন । ৩.খামারকান্দি ইউনিয়ন । ৪.খানপুর ইউনিয়ন । ৫. মির্জাপুর ইউনিয়ন । ৬. বিশালপুর ইউনিয়ন । ৭.ভবানীপুর ইউনিয়ন । ৮. সুঘাট ইউনিয়ন । ৯. সীমাবাড়ী ইউনিয়ন ।১০.শাহ-বন্দেগী ইউনিয়ন ।

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button