সোনাতলা উপজেলা

বগুড়ার সোনাতলায় মরিচের বাম্পার ফলন


বগুড়ার সোনাতলার এবার মরিচের বাম্পার ফলন হয়েছে। অর্থকরী ফসল মরিচের ভালো দাম পেয়ে বেজায় খুশি ওই উপজেলার কৃষকেরা। উপজেলার একটি পৌরসভা ও ৭টি ইউনিয়নে এবার রেকর্ড পরিমাণ জমিতে মরিচের বাম্পার ফলন হয়েছে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ সালাহ উদ্দিন সরদার জানান, বগুড়ার সোনাতলায় এবার ১৩শ‘ ২০ হেক্টর জমিতে মরিচের চাষ করা হয়েছে। ফলনও হয়েছে বেশ ভালো। ওই উপজেলার কৃষকেরা তিনটি হাইব্রিড জাতের মধ্যে সনিক, ১৭০১ ও বিজলী প্লাস এবং স্থানীয় উন্নত জাতের মরিচের ব্যাপক করেছে। এবার রেকর্ড পরিমাণ জমিতে মরিচের চাষ হয়েছে।

বিজ্ঞাপন


তিনি আরও জানান, এই উপজেলার উপর দিয়ে বয়ে গেছে যমুনা ও বাঙালী নদী। তাই বন্যার পর চরাঞ্চলে এবং অন্য জমিতে পলি জমায় প্রতি বছর সেগুলো জমিতে মরিচের বাম্পার ফলন হয়। প্রতিবিঘা জমিতে ১২/১৫ মন মরিচ উৎপন্ন হয়। প্রতি মণ কাচা মরিচ হাটে বাজারে ১৬শ’ টাকা থেকে ১৮শ’ টাকায় বিক্রয় করতে দেখা গেছে। আবার টোপা ও সুট মচির ২ হাজার থেকে আড়াই হাজার টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।


বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার পাকুল্যা ও করমজা হাটসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, কৃষক তাদের উৎপাদিত কাঁচা মরিচ ও শুকনা মরিচ বাজারজাত করণ করছে। সোনাতলায় উৎপন্ন মরিচ দেশের বিভিন্ন স্থানে বেচাবিক্রির জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এবার কৃষক ভালো দাম পেয়ে নগদ অর্থ ঘরে তুলছে।


পাকুল্যা এলাকার কৃষক ফরহাদ হোসেন জানান, এবার তিনি ৫/৬ বিঘা জমিতে মরিচ চাষ করে ব্যাপক লাভভান হয়েছেন।


ঠাকুরপাড়া এলাকার তোজাম্মেল হক জানান, এবার তিনি ৬/৭ বিঘা জমিতে হাইব্রিড জাতের মরিচ বপন করেছেন। ফলনও হয়েছে বেশ ভালো। ইতিমধ্যেই তিনি প্রায় ১ থেকে দেড় লাখ টাকা মরিচ বিক্রি করেছেন।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button
ভাষা নির্বাচন