আদমদিঘী উপজেলা

সুলতান মাহমুদের সান্তাহারে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন


বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার ঐতিহাসিক রক্তদহ বিলের কোলঘেষে করজবাড়ী গ্রামে ১৯৫১ সালের ১১ই নভেম্বর জন্ম হয় কবিরত্ন সুলতান মাহমুদের। নানা প্রতিভার মানুষ ছিলেন তিনি। তিনি একাধারে বীরমুক্তিযোদ্ধা,সার্ভেয়ার,সু-বক্তা,গায়ক ও কবি ব্যাক্তিত্বে মানুষ ছিলেন। বার্ধক্য জনিত কারণে সান্তাহার ইয়ার্ড কলোনীর বাসায় বৃহস্প্রতিবার ভোরে কবিরত্ন সুলতান মাহমুদ ৬৮ বছর বয়সে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। তিনি পিতা মৃত কাবেজ উদ্দিন প্রামানিক ও মাতা মৃত আলতাফুন নেছার প্রথম সন্তান ছিলেন । মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও দুই মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
উল্লেখ্য, কবি সুলতান মাহমুদের এ পর্যন্ত তার ৫হাজার লেখা কবিতার মধ্যে বিভিন্ন মাধ্যমে দেড় হাজার কবিতা প্রকাশ পেয়েছে। কবি হিসেবে তিনি দেশ বিদেশ থেকে বহুবার পুরষ্কৃত হয়েছেন। তিনি ২০১৭ এবং ১০১৮ সালে ভারতের কলকাতায় আন্তর্জাতিক সাহিত্য উৎসবে মহত্মাগান্ধি স্বর্ণপদক পুরষ্কার লাভ করেন। তাছাড়া ভারতে সর্বচ্চো আন্তর্জাতিক কবিরত্ন খেতাবে ভূষিত হন। ছায়াবীথির আয়োজনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৭সালে ৬ই জানুয়ারী কবি হিসেবে সম্মাননা পদক লাভ করেন। শুধুৃ তাই নয় দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বহুবার পুরষ্কৃত করা হয়েছে তাকে।

বিজ্ঞাপন

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button