বগুড়া সদর উপজেলাবিনোদন
ট্রেন্ডিং পোস্ট:

জেলখানায় গিয়ে স্টোরি লিখবঃ হিরো আলম (ভিডিও সহ)

যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে মারধরের অভিযোগে আশরাফুল ইসলাম আলম ওরফে হিরো আলমকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। এর আগে গতকাল বুধবার রাতে বগুড়া সদর থানায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। নারী নির্যাতনের আসামি হয়েও থানায় অতিথি আপ্যায়ন পেয়েছেন হিরো আলম। আজ ‍বুধবার তেমন একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে ।
ভিডিওতে দেখা যায়, থানায় বসে পুলিশের সঙ্গে হাসি-ঠাট্টা করছেন হিরো আলম। এ সময়ত তিনি চা-ও পান করেন। সেখানে সাংবাদিকদের সঙ্গেও দীর্ঘ আলাপ করেন তিনি। ১ মিনিট ৪৬ সেকেন্ডের ভিডিওতে তাকে সবার সঙ্গে আনন্দ ও হাসিমুখে কথা বলতে দেখা যায়।
 
থানায় এসে কী কী খেয়েছেন-এমন প্রশ্নের উত্তরে হিরো আলম বলেন, ‘আঙ্গুর-আপেল সব খাইছি’, ‘ওসি স্যার দিয়েছিল।’ আপনাকে হাজতখানায় রাখা হয়নি কেন? উত্তরে হিরো আলম বলেন, ‘রাখবে সকাল হলে।’ আপনি এত জনপ্রিয় হয়ে কেন এই কাজটা করলেন-এ প্রশ্নের উত্তরে হিরো আলম বলেন, আমি দুইটা জিনিস প্রশ্রয় দেই না। মিথ্যা কথা ও মিথ্যুককে। অন্য কেউ হলেও আমি ছাড় দেই না। ওরে (স্ত্রী) আমরা হাতেনাতে ধরছি বলেই কিন্তু আমার কাছে সাক্ষী-প্রমাণ আছে। তাই বউ আছে ঠিক আছে, বউ বলেও ছাড় নেই।’ আপনি নারী নির্যাতন মামলার আসামি, এভাবে থানায় বসে চা খাওয়া আপনার রেকর্ড। হিরো আলম বলেন, ‘বাংলাদেশে কত আইনই তো আছে, কয়টা আইন কে মানে।’ এখন আপনি কি করবেন, রাতে হাজতখানায় থাকবেন, উত্তরে হিরো আলম বলেন, ‘হ্যাঁ। সকাল বেলায় জেলখানায় যাব। গ্রেফতার হলে যাওয়া লাগবে না। এটা কি শ্বশুরবাড়ি আমার।’
জেলখায় গিয়ে কী করবেন-জানতে চাইলে হিরো আলম বলেন, ‘জেলখানায় গিয়ে স্টোরি লিখব। কয়েদিদের জীবন ঘটনা লিখে একটা মুভি বানাব।
থানায় এসে হাসি ঠাট্টায় মশগুল হিরো আলম

বিজ্ঞাপন

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button