বগুড়া সদর উপজেলা

বউকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠালেন হিরো আলম


সময়ের জনপ্রিয় ও আলোচিত অভিনেতা এবং ইউটিউবার হিরো আলমের মারপিটের কারণে তার স্ত্রী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। বিশেষ সূত্রে জানা গেছে, আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম সিনেমা ইউটিউব এগুলো নিয়েই বেশির ভাগ সময় ব্যস্ত থাকতেন। পরিবার, স্ত্রী সন্তানের কোনো খোঁজ খবর তেমন রাখতেন না। বরং সিনেমার অভিনেত্রীদের নিয়েই জীবনযাপন করতেন তিনি। ফলে, সংসারে লেগেই থাকত অভাব অনটন। কিন্তু এগুলো তার স্ত্রী সাবিহা আক্তার সুমি নীরবে সহ্য করতেন। দিনের পর দিন বাড়তে থাকে পারিবারিক কলহ আর নির্যাতন। নির্যাতনের মাত্রা যখন বাড়তে থাকে তখনও তিনি হাল ছাড়েননি।

বিজ্ঞাপন


তার স্ত্রী সাবিহা আক্তার সুমি জানান, প্রায় দিনই আমাদের সংসারে ঝগড়া হতো। তিনি (হিরো আলম) আমাদের কোনো খোঁজ খবর রাখে না। সিনেমা আর অভিনয়ে ব্যস্ত থাকে। আমরা খেয়ে থাকি আর না খেয়ে থাকি তাতে কোনো মাথা ব্যথা তার যেন ছিল না। তিনি আরও জানান, হিরো আলম চলাফেরা করে উচ্চবিত্তের মতো বিলাসিতা করে। আলম আমাকে প্রায় প্রত্যেকদিনই নির্যাতন করে। মঙ্গলবার (৫ মার্চ) দিবাগত রাত ২টার দিকে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আলম তেরে ওঠে আমার ওপর। আমার গলা চেপে ধরে, শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারপিট করে জখম করে।

বিজ্ঞাপন


সর্বশেষ অবস্থায় জানা যায়, হিরো আলমের স্ত্রী সাবিহা আক্তার সুমি বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজের ক্যাজুয়ালটি বিভাগের ১ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি আছেন।


হিরো আলমের শ্বশুর জানান, আমি আমার মেয়ের নির্যাতনের বিচার চাই। আজকে আমরা হিরো আলমের নামে মামলা করার প্রস্তুতি গ্রহণ করছি।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button