নন্দীগ্রাম উপজেলা

বগুড়া নন্দীগ্রামে গৃহবধূকে বাবার বাড়ি যেতে না দেয়ায় আত্নহত্যা!

বগুরা জেলার নন্দীগ্রাম উপজেলায় গিতা রানী (২৪) নামে অন্তঃসত্ত্বা এক নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার রাতের কোনো একসময় গলায় রশি দিয়ে অন্তঃসত্ত্বা এই গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা পুলিশের। তিনি ওই গ্রামের প্রবাসী রতন চন্দ্রের স্ত্রী।

বিজ্ঞাপন

মৃত গিতা রানীর বড় ভাই গিরেন চন্দ্র বলেন, গিতার স্বামী রতন চন্দ্র গত বছরের অক্টোবর মাসে কাজের জন্য দেশের বাইরে যায়। গিতার স্বামীর বাড়ি ও বাবার বাড়ি একই গ্রামে। দুই বাড়ি পাশাপাশি হওয়ায় শুক্রবার সন্ধ্যায় গ্যাস সিলিন্ডার নিয়ে বাবার বাড়িতে যেতে চেয়েছিল গিতা। ওই সময় গিতাকে গ্যাস সিলিন্ডার নিয়ে বাবার বাড়ি যেতে বাধা দেয় শাশুড়ি।

এই বাধা দেয়া নিয়ে বউ-শাশুড়ির মধ্যে ঝগড়ার সৃষ্টি হয়। বিষয়টি নিয়ে অভিমান করে রাতে সবার অজান্তে নিজ ঘরে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করে গিতা।

নন্দীগ্রাম থানার উপ-পরিদর্শক বলেন, এ বিষয়ে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button
ভাষা নির্বাচন