প্রয়োজনীয় তথ্য

বগুড়া জেলার ঐতিহ্য, প্রত্নতাত্ত্বিক ও সম্ভাব্য পর্যটন স্পটের তালিকা

১। মহাস্থানগড়
২। দধি সাগর
৩। নলডুবি মাজার
৪। বাঁকা দিঘী
৫। মথুরা রাজবাড়ির ধংসাবশেষ
৬। দরগাহাট সুলতানের মাজার
৭। কাহালু জমিদার বাড়ীর নট মন্দির
৮। ঐতিহাসিক যোগীর ভবনের মন্দির
৯। কালু পীরের মাজার
১০। মুরইল জমিদার বাড়ীর ধ্বংসাবশেষ
১১। পাঁচপীর মাজার
১২। শাল বাহন রাজার প্রাসাদ
১৩। সতীকন্যা সাহেবানীর মাজার
১৪। অচিন গাছ
১৫। পীড়াপাট গোরক্ষনাথ মন্দির
১৬। ক্ষুদ্র মসজিদ সান্তাহার
১৭। নবাব বাড়ি প্যালেস মিউজিয়াম
১৮। বাবা আদমের মাজার ও আদমদিঘীর প্রখ্যাত দিঘী
১৯। বাবুর পুকুরের গণকবর
২০। আস্তান শরিফ মাজার
২১। সুলতান বগরা সাহেবের মাজার
২২। শেরপুরের ঐহিত্যবাহী মা-ভবানীর মন্দির
২৩। পঞ্চদশ শতাব্দীর ঐতিহাসিক খেরুয়া মসজিদ
২৪। সিংহের সিমলা জমিদার বাড়ি
২৫। মশমা দিঘী
২৬। জয়পীরের মাজার
২৭। সান্তাহার সাইলো
২৮। দেওতা খানকা হ্ মাজার শরিফ
২৯। এডওয়ার্ড পার্ক
৩০। কালীদহ সাগর
৩১। বিপ্লবী প্রফুল্ল চাকীর জন্ম ভিটা
৩২। হযরত শাহ সুলতান মাহমুদ বলখী (র:) এর মাজার শরীফ
৩৩। রানী ভবানির বাবার বাড়ি
৩৪। আকবর ই ইলাহি এবাদত খানা
৩৫। হরিনা জমিদার বাড়ি
৩৬। মসলা গবেষণা কেন্দ্র, শিবগঞ্জ
৩৭। ঐতিহাসিক সাতমাথা
৩৮। ফুলবাড়িয়া বধ্যভূমি
৩৯। বেহুলার বাসর ঘর (গোকুল মেধ)
৪০। জিউৎকুন্ড
৪১। শীলাদেবীর ঘাট
৪২। ভিমের জাংগাল
৪৩। ভাসু বিহার বা খুরনার ধাপ
৪৪। করতোয়া তট
৪৫। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার
৪৬। গুনাহার জমিদার বাড়ি
৪৭। ঊডবাণ পাবলিক লাইব্রেরী
৪৮। নিলকুটি শেরপুর
৪৯। গাবতলি ফকির বাড়ি ও মসজিদ
৫০। জৈন মন্দির ( গালাপট্টি )
৫১। সনাতন মন্দির
৫২। বগুড়া বাইতুল মামুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ (উত্তরবঙ্গের ভিতর বড় মসজিদ )
৫৩। অন্ধ পুকুর
৫৪। শাহ ফতেহ আলী মাজার
৫৫। মোহাম্মাদ আলী হাসপাতাল
৫৬। আজিজুল হক কলেজ
৫৭। সুখানপুর হাইস্কুল
৫৮। বগুড়া লালন একাডেমী
৫৯। পল্লীউন্নয়ন একাডেমী
৬০। মজিবুর রাহমান মহিলা কলেজ
৬১। করনেশন স্কুল
৬২। শেরপুর ডিজে হাই স্কুল
৬৩। পুন্ড্র বিশ্ববিদ্যালয়
৬৪। জিলা এবং ভিএম স্কুল
৬৫। সাউদিয়া সিটি পার্ক
৬৬। প্রেম যমুনার ঘাট
৬৭। মহাস্থানের কটকটি
৬৮। সোনাকানিয়া গুড়াভাঙ্গা নদীর পাড় (তেমাথা)
৬৯। হোটেল নাজ গার্ডেন
৭০। ইছামতি নদির চর
৭২। বাঙ্গালী নদির মোহনা বিলচাপড়ি
৭৩। ওয়ান্ডারল্যান্ড পার্ক
৭৪। ভান্ডারবাড়ী সুটিং পার্ক
৭৫। কেল্লাপুশির মেলা
৭৬। চুন্নুর চাপ
৭৭। জিয়া মেডিকেল কলেজ
৭৮। সারিয়াকান্দির পানি বন্দর
৭৯। শিমুলবাড়ী গোয়েন বাধ
৮০। মোকামতলা ঈদগাহ মাঠ
৮১। বগুড়া মাঝিড়া ক্যান্টনমেন্ট
৮২। পিলুর পেয়ারা বাগান (উত্তর বঙ্গের মধ্যে সবচেয়ে বড়)
৮৩। বগুড়ার মরিচ
৮৪। বগুড়ার দই
৮৫। রানাপ্লাজা
৮৬। কাঁকড়ার বিল
৮৭। ডেমাজানি টিয়া পাখির আশ্রম
৮৮। সোনাই তলীর বিল
৮৯। বাইসা বিল
৯০। শহিদ চান্দু ষ্টেডিয়াম
৯১। পোড়াদহ মাছের মেলা
৯২। সান্তাহার রেল জংশন
৯৩। বগুড়া রেল ষ্টেশন
৯৪। টুটুল প্যাঁলেস (বায়বহুল এবং বড় বাড়ি )
৯৫। জামিল মাদ্রাসা (উত্তরবঙ্গের ভিতর বড় মাদ্রাসা )
৯৬। দেবডাঙ্গা ফিস পাস
৯৭। বলিহার জমিদার বাড়ি ( ডেমাজানি-শাজাহানপুর )
৯৮। থমসন হল
৯৯। ধুনট নিল কুঠি
১০০। মাদলা জমিদার বাড়ি
১১১। বগুড়া ইয়ুথ কয়্যার
১০২। বাগবাড়ি ( জিয়াউর রহমানের বাড়ি)
১০৩। শেরশাহের সৈন্য বাহিনীর আস্থাবল
১০৪। মহিষাবান ( জিয়ার দাদার বাড়ি )
১০৫। বামুনিয়া কুমার পল্লী (গাবতলি)
১০৬। শাওয়াল তাতপল্লী ( আদমদীঘি)
১০৭। গুনাহার জমিদার বাড়ি ( দুপচাচিয়া)
১০৮। গান্ধী ভিটা ( দুপচাচিয়া)
১০৯। খোলাশ খেলনা শিল্প (দুপচাচিয়া)
১১০। গোবিন্দ মন্দির (দুপচাচিয়া)
১১১। উত্তরবঙ্গের প্রথম সিলভার কারখানা (দুপচাঁচিয়া)
১১২| শেখেরকোলা কুমার পল্লী ( বগুড়া সদর)
১১৩। ভাতহাণ্ডা গ্ৰামের সৈয়দ মীরা সাহেবের মাজার (দুপচাঁচিয়া)
১১৪। মমইন (টিএমএসএস)
১১৫। গ্রোয়েন বাধ (সারিয়াকান্দি)

আরো ও আছে…….

বিজ্ঞাপন

নাম সংগ্রহেঃ বগুড়া ট্যুরিষ্ট ক্লাব।

বিজ্ঞাপন

সব থেকে বড় কথা হল বগুড়া জেলার মানুষের আতিথিয়তা আমাদের বড় সম্পদ।

TAUFIK

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button