জাতীয়

বগুড়া পলিটেকনিক শিক্ষার্থী মোহাজেরিনের বাঁচার আকুতি

বগুড়ায় বিরল রোগে আক্রান্ত কলেজ ছাত্রী মোহাজেরিন খাতুন (১৮) সুস্থ্য হয়ে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হতে চায়। কিন্তু তার শরীরে রয়েছে অজানা রোগ।

অনেক স্বপ্ন নিয়ে ভর্তি হয়েছিল বগুড়া পলিটেকনিকে প্রকৌশলি হয়ে দারিদ্র পরিবারের হাল ধরবে। অভাবের শৃঙ্খল ভেঙে যেন সচ্ছলতার মুখ দেখতে পায় কিন্তু তার সব স্বপ্ন যেন আজ দুঃসপ্ন হতে বসেছে ।

বিজ্ঞাপন

বগুড়ায় বিরল রোগে আক্রান্ত কলেজ ছাত্রী মোহাজেরিন খাতুন (১৮) সুস্থ্য হয়ে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হতে চায়। কিন্তু তার শরীরে রয়েছে অজানা রোগ। আর এই রোগের কারণে মোহাজেরিনসহ তার পুরো পরিবার রয়েছে দুশ্চিন্তায়। পরিবারের সদস্যরা বলছেন মোহাজেরিন এর চোখ, নাক ও কান দিয়ে রক্ত ঝরে। রক্ত ঝরার সময় তার হাত, পা কাঁপে। প্রায় ১ মিনিট ধরে রক্ত পড়ার পর তা আবার বন্ধ হয়ে যায়।

মরণ ব্যাধি তার শরীরে বাসা বেঁধেছে সপ্নভরা চোখ নিয়ে আজ মৃত্যুর প্রহর গুনছে মহাজেরিন।মহাজেরিনের বাসা বগুড়া শহরের ধরমপুর পূর্ব পাড়ায় তাঁর বাবা পেশায় একজন স্বর্ণ শ্রমিক ।

মহাজেরিন বর্তমানে বগুড়া পলিটেকনিকের মেকানিক্যাল বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্রী । তার এই বিরল রোগের কারণে তার শিক্ষা জীবন আজ হুমকির সম্মুখিন। প্রতিনিয়ত তার নাক,মুখ, চোখ দিয়ে রক্ত ঝরছে মাঝে মাঝে অজ্ঞান হয়ে পড়ছে । তার এই রোগ একটি বিরল রোগ।

পৃথিবীর ইতিহাসে ১১-১২ জন রোগী এই রোগে আক্রান্ত ।বাংলাদেশে এই রোগের তেমন কোন চিকিৎসা নেই । তাই চিকিৎসকরা তার উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নিতে বলেছে। কিন্তু তার দরিদ্র বাবার পক্ষে চিকিৎসার ব্যয় বহন করা সম্ভব হচ্ছে না ।

ইতিমধ্যেই তাঁর বাবা তার সহায় সম্বল গরু ছাগল বিক্রি করে নিঃস্ব নিজেদের থাকার ভিটে মাটি ছাড়া তাদের আর কিছুই নেই।

তাই তার বাবা মোতাহের হোসেন সমাজের বিত্তবান সহৃদয়বান মানুষের কাছে আকুল আবেদন জানিয়েছেন।

যোগাযোগঃ
মোঃ মোতাহের হোসেন
ফোন নংঃ ০১৭৩৪৯০৯২৮০
জনতা ব্যাংক হিসান নংঃ ০১০০১১০৭১৯৩২

 

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button