আদমদিঘী উপজেলাবিনোদন

সান্তাহারে অবস্থিত বিনোদন কেন্দ্র ‘শখের পল্লী’ নিয়ে এলাকাবাসীর অভিযোগ

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহারের বশিপুরে স্থাপিত ‘শখের পল্লী’ নামে বিনোদন কেন্দ্র চালু ও বন্ধ রাখা নিয়ে এলাকাবাসী দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েছে বলে জানা গেছে। এখানে অসামাজিক কার্যাকলাপ চলে এমন অভিযোগে একপক্ষ এটি বন্ধ ও অপরপক্ষ এর বিরোধিতা করে চালু রাখতে রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনারের কাছে লিখিত আবেদন করেছেন। আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দুটি আবেদনরই তদন্ত করছেন। এ ব্যাপারে নির্বাহী কর্মকর্তা সাদেকুর রহমান জানান, তদন্ত শেষ পর্যায়ে শিগগিরই দুটি তদন্ত রিপোর্ট জমা দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
একপক্ষের শতাধিক ব্যক্তির আবেদনে জানা গেছে, নজরুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি প্রায় দেড় বছর আগে বশিপুর গ্রামে আবাসিক এলাকায় ‘শখের পল্লী’ নামে বিনোদন কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করেন। প্রথমদিকে বিনোদন কেন্দ্রে লোকসমাগম হয়নি। পরে সেখানে অসামাজিক কার্যাকলাপের সুযোগ দেয়ায় তরুণ-তরুণীদের আগমণ বাড়ে। বিনোদন কেন্দ্রটি জমজমাট হয়ে উঠে।
পিকনিকের নামে ভিতরে অশ্লীল নাচগান ও অন্যান্য বেআইনি কর্মকাণ্ড চলে। উচ্চ শব্দে মাইক বাজানোর কারণে আশপাশের বাসিন্দাদের ঘুম ও লেখাপড়ায় বিঘ্ন ঘটে। এমনকি নামাজের সময়ও মাইক বন্ধ করা হয় না। বিনোদন কেন্দ্রে পিকনিক করতে আসা জনগণ খাবারের উচ্ছিষ্ট অংশ, থালা, গ্লাস ও বোতল আশপাশের জমি এবং খালে ফেলে দেওয়ায় পরিবেশ দূষিত হয়। এ ব্যাপারে মালিক নজরুল ইসলামকে সর্তক করা হলেও তিনি তোয়াক্কো করেননি। আবেদনকারীরা বিনোদন কেন্দ্রটি বন্ধ বা অন্যখানে স্থানান্তরের দাবি জানিয়েছেন। তাদের দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়ে সুপারিশ করেছেন, সান্তাহার মেয়র তোফাজ্জল হোসেন।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button