বগুড়া সদর উপজেলা

চুরি হওয়া ১টি মোটর সাইকেলের অনুসন্ধানে উদ্ধার হলো আরও ১২ টি মোটর সাইকেল

বিশেষ প্রতিবেদন: গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলা জেলা থেকে ১২টি চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার করেছে বগুড়ার শাজাহানপুর থানা পুলিশ। রোববার রাতে অভিযান চালিয়ে এসব চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়। এ সময় পুলিশ দুইজনকে আটক করেছে। সোমবার দুপুরে বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞাপন

অভিযানের এক পর্যায়ে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ থানার নাকাইহাট এলাকার আব্দুল মান্নানের বাড়ি থেকে একটি কালো লাল রংয়ের ডিসকভার ১২৫ সিসি ও একটি লাল রংয়ের ১২৫ সিসি বাজাজ প্লাটিনা চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়। পরে মান্নাকে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে আরও কিছু মোটরসাইকেলের তথ্য দেয়। সে অনুযায়ী জেলার সাঘাটা উপজেলার পূর্ব শিমুলতাইর এলাকার মিঠু মিয়ার ছেলে রাজু মিয়া বাড়িতে অভিযান চালায় পুলিশ। সেখানে একটি নীল কাল রংয়ের ডিসকভার ১২৫ সিসি চোরাই মোটরসাইকেল পাওয়া যায়।

বিজ্ঞাপন

আবার রাজু মিয়ার দেয়া তথ্য মোতাবেক সাঘাটা থানায় কচুয়া বাজার এলাকার শিহাব উদ্দিনের গ্যারেজে অভিযান পরিচালনা করে সাতটি চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার হয়। ওই সময় আন্তঃজেলা মোটরসাইকেল চোর সিন্ডিকেটের সদস্য শিহাব পালিয়ে যায়। এছাড়া সাঘাটা থানার বাংলা বাজার এলাকা থেকে একটি ও সাঘাটা বাজার এলাকা হতে একটি চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার হয়।

উদ্ধারকৃত মোটর সাইকেলের বর্ণনা

বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা সোমবার দুপুরে তাঁর কার্যালয়ে বিশেষ ওই অভিযানের বিষয়ে ব্রিফিং করেন। তিনি জানান, চুরি যাওয়া মোটর সাইকেলগুলো রেজিস্ট্রেশন করা। ধারণা করা হচ্ছে জাল কাগজ দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করা হতে পারে। যাদের মোটর সাইকেল চুরি গেছে তাদেরকে পুলিশ অফিসে গিয়ে ইঞ্জিন ও চেসিস নম্বর দেখে মোটর সাইকেল সনাক্ত করার আহবান জানান তিনি। পুলিশ সুপার বলেন, ‘কারও ইঞ্জিন ও চেসিস নম্বর মিলে গেলে তাদের দ্রুত মোটর সাইকেল হস্তান্তর করা হবে।’

 

 

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button