জাতীয়

অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো মুশফিকুর রহিমের অন্য একটি পেশা

বিশেষ প্রতিবেদন:  মানুষ মানুষের জন্য
জীবন জীবনের জন্য
একটু সহানুভূতি কি মানুষ পেতে পারে না
ও বন্ধু….

বিজ্ঞাপন

মনে হয় এই কথার উপর ভিত্তি করেই বাংলাদেশ ক্রিকেট ও আমাদের বগুড়ার গর্ব মুশফিকুর রহিম সুযোগ পেলেই অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ান। অসহায় মানুষকে মনের অন্তরস্থল থেকে জানান সহমর্মিতা। এবার মুশফিকুর রহিম গেলেন কল্যাণপুরের পাইকপাড়ায় অবস্থিত ‘চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এইজ কেয়ার’ বৃদ্ধাশ্রমে।

বিজ্ঞাপন

‘চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এইজ কেয়ার’ বৃদ্ধাশ্রমে ছোট চারটি কক্ষে পুরুষ ও মহিলা মিলে মোট ২২ জন থাকেন।

গত মঙ্গলবার মিরপুরে হালকা রানিং করেই সেখানে চলে যান তিনি। সেখানে গিয়ে মানসিক ভারসাম্যহীন এক বৃদ্ধা গান শুনলেন মুশফিককে। শুনলেন তাদের অসহায়ত্বের গল্প। তিনি হয়ে উঠলেন মানবিকতার এক মূর্ত প্রতীক।

যিনি মুশফিককে গান শুনিয়েছেন সেই বৃদ্ধার নাম কেউ জানে না! খুব বেশি লাফালাফি করেন বলে ‘লাফা’ নামেই ডাকেন সবাই।

প্রথমে মুশফিককে বৃদ্ধাশ্রমের কেউ চিনতে পারেননি। সেখানকার পুরুষ ও মহিলারা ভেবেছেন কেউ একজন দেখতে এসেছেন। আর সেটাতেই তারা আপ্লুত। তাদের সাথে মুশফিকও আপ্লুত।

তিনি বলেন, তারা যে জায়গায় আছেন বা যে সংগ্রামের মধ্যে দিয়ে এসেছেন, তাতে আমাদের চেনারও কথা নয়। কেউ না কেউ তো দেখতে এসেছিল, এটাই অনেক বড় ব্যাপার। তাদের দেখে বুঝতে পারছি আমরা কত ভাল আছি। আরও বড় বড় কাজের সাথে যেন জড়িত থাকতে পারি, সেটিই চাই।

আজ বাংলাদেশের গর্ব মুশফিক যে দৃষ্টান্ত দেখালেন তা অনন্য। অথচ আমাদের সমাজে আর্থিক সচ্ছল ব্যক্তিদের ওভাব নেই। ‘আমি চাইব তারাও এগিয়ে আসুক। বৃদ্ধ যারা আছেন, তারা অনেক কষ্টে আছেন। তারা যদি শেষ সময়টা একটু ভাল কাটিয়ে যেতে পারেন তাহলে এর চেয়ে ভাল কিছু আর হয় না।

মুশফিক বলেন চেষ্টা থাকবে তাদের সঙ্গে সময় কাটানোর এবং সাহায্য করা।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button