ধুনট উপজেলা

ধুনট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অপারেশন থিয়েটার এ আজও করা হয় নি কোন অপারেশন

বগুড়া লাইভঃ ধুনট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আছে আধুনিক অস্ত্রোপচার কক্ষ। সেখানে রয়েছে উন্নতমানের যন্ত্রপাতি। কিন্তু সেখানে নেই কোন অস্ত্রচিকিৎসক। এ কারনে প্রতিষ্ঠার পর এক দিনও অস্ত্রোপচার হয়নি।

বিজ্ঞাপন

অস্ত্রোপচার কক্ষের ভেতর পড়েছে ধুলা-বালির স্তর। মরিচার আবরনে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে কক্ষের যন্ত্রপাতি।

বিজ্ঞাপন

এমনকি কক্ষ খুলেও দেখা হয়নি কোন দিন। ফলে নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে মূল্যবান যন্ত্রপাতি গুলো। কোটি কোটি টাকার যন্ত্রপাতির মাধ্যমে বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা পাচ্ছে না দরিদ্র রোগীরা। এখানে অস্ত্রোপচারের কোন রোগী আসলে, তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

এক্স-রে যন্ত্রটি বছরের অধিকাংশ সময় নষ্ট থাকে। ইসিজি কিংবা আলট্রসনোগ্রামের কোন ব্যবস্থা নেই। ফলে রোগীরা বেশি টাকা ব্যয়ে বাইরে থেকে রোগ নির্ণয় করছেন।

প্রতিষ্ঠার পর থেকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেটি চিকিৎসক, নার্স, যন্ত্রপাতি ওষুধ ও অবকাঠানো অভাবে খুড়িয়ে খুড়িয়ে চলছে।

৫০ শয্যার এই হাসপাতালে ২১ চিকিৎসকের স্থলে কর্মরত আছেন ৩ জন। ১৬ জন নার্সের স্থলে কাজ করছেন ১১জন। এখানে আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও), চক্ষু, চর্ম, যৌন, গাইনী, হৃদ্রোগ, মেডিসিন ও জুনিয়ার কনসালট্যান্ট (সার্জারি) নেই।

ধনুট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান তৌহিদুল আলম মামুন বলেন, বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক না থাকায় এলাকার সাধারণ রোগীরা চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

সেই সাথে দুঃখ জনক হলেও সত্য দূর্ঘটনায় রোগীর দেহ থেকে সামান্য রক্ত ঝরলেই কর্তব্যরত চিকিৎসক সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে অন্য হাসপাতালে রেফার্ড করে দেন।

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button