নন্দীগ্রাম উপজেলা

বগুড়ার নন্দীগ্রাম-শেরপুর সড়কের প্রায় ১০ফুট এলাকাজুড়ে তিন ফুট দেবে গেছে

নন্দীগ্রাম, বগুড়া:  রাস্তা উদ্বোধনের একবছর পর ফের ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন যাহবাহনের চালক ও যাত্রীরা। বগুড়ার নন্দীগ্রাম-শেরপুর সড়কের প্রায় ১০ফুট এলাকাজুড়ে তিন ফুট দেবে গেছে। পুকুরে ধসে পড়ছে রাস্তা। সেদিকে দেখার কেউ নেই। সড়ক ও জনপথ বিভাগ বলছে, পুকুরধারে রাস্তার প্যালাসাইটিং নির্মাণ ও সংস্কার কাজে অনেক সময় প্রয়োজন।

বিজ্ঞাপন

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, খানাখন্দে দীর্ঘদিন ধরে অবহেলায় পড়ে থাকা উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি নতুনভাবে নির্মাণ করে ২০১৭ সালের ২৯ মার্চ উদ্বোধন করা হয়। একবছর যেতে না যেতই নন্দীগ্রাম-শেরপুর সড়কের দোহার বাজার এলাকায় পুকুরে মাটি ধসে পড়াসহ দেবে গেছে। ফলে প্রতিনিয়ত যানবাহন চলাচলে যানজট ও ভোগান্তিতে পড়ছেন সাধারণ মানুষ। সড়কের দেবে যাওয়া স্থানে গর্তের সৃষ্টি হচ্ছে। এর মধ্যেই চরম ঝুঁকি নিয়ে লাইন ধরে ধীরে ধীরে চলাচল করছে যানবাহন।

বিজ্ঞাপন

দোহার ও ভদ্রদীঘি চারমাথার বাজারের ব্যবসায়ীরা বলেন, রাস্তার মাঝপথে ফাটল, গর্তসহ মাটি দেবে গেছে। বিষয়টি সওজ বিভাগকে একাধিকবার মুঠোফোনে জানানো হয়েছে। এ সড়কটি নাটোর ও রাজশাহী জেলার সঙ্গে কম সময়ে ও খরচে সহজে যোগাযোগের একমাত্র পথ। বিকল্প পথে বগুড়া ঘুরে প্রায় ৫০ কিলোমিটার অতিরিক্ত পাড়ি দিতে হয়। প্রতিদিন এই সড়কে বিভিন্ন ধরনের কমপক্ষে পাঁচ শতাধিক যানবাহন চলাচল করে। প্রায় একমাস হলো সড়কটি ভেঙে দেবে গেছে। দেখারমত কেউ নেই।

এপ্রসঙ্গে বগুড়া সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আলিম বলেন, বিষয়টি জানার পর সড়কের ভাঙা ও দেবে যাওয়া স্থানটি পরিদর্শন করা হয়েছে। ভাঙাস্থানে সংস্কার ও পুকুরধারে প্যালাসাইটিং নির্মাণ করতে অনেক সময়ের প্রয়োজন।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button